সারাদিনের সেরা খবর – ০১ আগষ্ট ২০১৮

সারাদিনের বাছাই করা খবর
প্রতিদিন আমাদের ওয়েবসাইট ভিসিট করুন প্রতিদিনের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি পাবার জন্য।

দিনহাটা কলেজের এক নবাগত ছাত্রকে মারধোর করে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে

মনিরুল হক, দিনহাটাঃ কলেজের ভিতর থেকে এক নবাগত ছাত্রকে মারধোর করে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠল একদল দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে দিনহাটা কলেজে। ওই ঘটনার প্রতিবাদে কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের রুমের সামনে তৃনমূল ছাত্র পরিষদের ছাত্রছাত্রীরা বিক্ষোভ দেখান। ওই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায় দিনহাটা কলেজে।

জানা গেছে, আক্রান্ত ওই ছাত্রের নাম তুষার সেন গুপ্ত। সে দিনহাটা কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র। সে আজ প্রথম দিনহাটা কলেজে আসেন। কলেজের ভিতরে প্রবেশ করা মাত্র কয়েক জন দুষ্কৃতী ওই নবাগত ছাত্রকে মারতে মারতে টোটোতে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে বলে অভিযোগ। পরে তার সহপাঠীদের সাহায্যে ওই ছাত্রকে উদ্ধার করা হয়। সেই সময় দুষ্কৃতীরা পালিয়ে যায়। সেই ঘটনার প্রতিবাদে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষেকে একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়।

দিনহাটা কলেজের সাধারন সম্পাদক সৌরভ পোদ্দার বলেন, “কলেজ ক্যাম্পাসের ভিতরে ঢুকে ছাত্রকে মারধোর করে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে একদল দুষ্কৃতী। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক ঘটনা। আজ ওই ঘটনার প্রতিবাদে আমরা তৃনমূল ছাত্র পরিষদ অধ্যক্ষের ঘরের সামনে বিক্ষোভ দেখাই। ওই ঘটনায় কলেজের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে বহিরাগতদের চিহ্নিত করে তাদের গ্রেপ্তারের দাবি জানাই। ভবিষ্যতে আর কোনও দুস্কৃতী এরকম করতে না পারে তার ব্যবস্থা গ্রহন করুক অধ্যক্ষ সেই আশাই আমরা ছাত্র পরিষদ রাখছি।“

এই ঘটনা নিয়ে কোচবিহার জেলার তৃনমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি সাবির সাহা চৌধুরী বলেন, “ আমি জেলার বাহিরে রয়েছি, তবে ঘটনাটা শুনেছি। কলেজ ক্যাম্পাসের ভিতরে বহিরাগতরা এসে এক নবাগত ছাত্রকে মারতে মারতে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে তা অত্যন্ত দুঃখজনক। আমি পুলিশ প্রশাসন ও অধ্যক্ষের কাছে আবেদন রাখব। যারা এই ঘটনার সাথে যুক্ত তাদের চিহ্নিত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা প্রয়োজন।“

দিনহাটা কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অমিতাভ দত্ত বলেন, “ ঘটনাটি আমি শুনেছি। এটা নিন্দনীয় ঘটনা। কলেজ ক্যাম্পাসে এরকম ঘটনা মেনে নেওয়া যায় না। আজ কলেজের প্রথম দিন। সবে মাত্র প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছাত্রীরা কলেজ আসতে শুরু করল। তারপর এরকম ঘটনা ঘটলে ছাত্র ছাত্রীরা কলেজে আসতে চাইবেনা। ঘটনাটি আমি প্রশাসনকে জানিয়েছি। পরবর্তীতে পুলিশ প্রশাসন কি ব্যবস্থা নেয় সেটাই দেখার।”

 

পথ দুর্ঘটনায় আহত স্কুল ছাত্রী, বিক্ষোভ স্থানীয় বাসিন্দাদের

কার্তিক গুহ, পশ্চিম মেদনীপুরঃ পথ দুর্ঘটনায় আহত হল এক স্কুল ছাত্রী। আহত ওই ছাত্রীর নাম দীপ্তি মাহাতো। বুধবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের গুড়গুড়িপাল থানার মালবাঁদী এলাকায়। স্থানীয় বাসিন্দারা তাঁকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে দেয়। ওই ঘটনার পর পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয় গ্রামবাসীরা। যার জেরে অবরুদ্ধ হয়ে পরে মেদিনীপুর- ঝাড়গ্রাম রাজ্য সড়ক।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এদিন সকালে দীপ্তি বন্ধুর বাড়ি থেকে টিউশন পড়ে বাড়ি ফিরছিল। সেইসময় একটি গাড়ি তাঁকে ধাক্কা মারে। ঘটনায় গুরুতর আহত হয় সে। এরপর স্থানীয় বাসিন্দাদের তৎপরতায় আহত ছাত্রীকে উদ্ধার করে মেদিনীপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এই দুর্ঘটনার পরে-ই উত্তেজিত জনতা ঘাতক গাড়িটিকে ভাঙচুর চালায়। ওই ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গেলে পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখায় স্থানীয় বাসিন্দারা।

নক্ষত্র নিয়ে আলোচনায় যোগ দিতে অস্ট্রিয়া যাচ্ছেন পিবিইউ-র অধ্যাপক

কোচবিহার, ১ আগস্টঃ নক্ষত্রের জন্ম-মৃত্যু, বিবর্তন ইত্যাদি বিষয় নিয়ে এক আলোচনা চক্রে যোগ দিতে অস্ট্রিয়ায় পাড়ি দিচ্ছেন কোচবিহারের পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডঃ প্রদীপ কুমার চট্টোপাধ্যায়। তিনি পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিদ্যার অধ্যাপক।

আন্তর্জাতিক মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ও ভারত সরকারের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি দফতরের আর্থিক সহযোগিতায় এবং আন্তর্জাতিক মহাকাশ গবেষণা সংস্থা আমন্ত্রণে অস্ট্রিয়া যাচ্ছেন তিনি। আগামী ১৮ আগস্ট তিনি অস্ট্রিয়া যাচ্ছেন। সেখানে ১৪ দিন ধরে নক্ষত্রের জন্ম, বিবর্তন, মৃত্যু ও মৃত্যু পরবর্তী অবস্থা সম্পর্কে আলোচনা চক্রে আলকপাত করবেন।

তৃনমূলে যোগ দিয়ে মালদা ফিরলেন বিধায়ক সাবিনা ইয়াসমিন

প্রনব মণ্ডল, মালদাঃ কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়ে মালদায় ফিরলেন মোথাবাড়ির বিধায়ক সাবিনা ইয়াসমিন। বুধবার মালদা স্টেশনে ফিরতেই জন জোয়ারে ভাসলেন তিনি। একুশে জুলাই কলকাতায় তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন বিধায়ক সাবিনা ইয়াসমিন। এদিন বেলা সাড়ে বারোটা নাগাদ কলকাতা থেকে মালদা আসেন তিনি। ট্রেন মালদা স্টেশনে পৌঁছতে তাঁকে ফুল মালা দিয়ে স্বাগত জানান কয়েক হাজার তৃণমূল কর্মী সমর্থক। স্টেশন থেকে মিছিল করে প্রথমে শহরের রথবাড়ি এলাকায় গিয়ে প্রয়াত গনি খান চৌধুরিরর মূর্তিতে মাল্যদান করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর রাস্তায় বিভিন্ন জায়গায় দাঁড়িয়ে তৃণমূলের কর্মী সমর্থকরা পুস্প স্তবক দিয়ে ও উত্তরীয় পরিয়ে সাবিনা ইয়াসমিনকে সংবর্ধনা জানায় দলীয় কর্মী-সমর্থকরা।

বিধায়ক সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, বৃষ্টিকে উপেক্ষা করেও এত মানুষ এসেছেন। আমি তাঁদের কাছে কৃতজ্ঞ। আগামী দিনে তাদের জন্য যদি কিছু করতে পারি তাহলে নিজেকে ধন্য মনে হবে। যে যাই বলুক, মানুষের কাজ করতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছি আগামী দিনে মানুষের কাজ করার জন্য।

কোচবিহার রাজার দলিল দেখিয়ে নাগরিকত্ব পেল অসমের গৃহবধূ বিউটি

সুমিতেশ ঘোষ, ছাটগুমা(ধুবরী): “রাজার দেশের মানষি হামরা।হামার কেনে নাম না ওঠে।” অসমের ধুবরি জেলার ছোটগুমা গ্রামের গৃহবধূ বিউটি। স্বামীর নাম জাহিদুর রহমান। অসমে নাগরিকত্ব পঞ্জিকরণের(এনআরসি) কাজ চলছে। পেশায় প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক জাহিদুর নিজেই নাগরিকত্ব পঞ্জিকরণের কর্মী। প্রথম দিকে ভোটার কার্ড, আধার কার্ড সব দিয়ে নাম তোলার জন্য স্বামীকে জানিয়েছিলেন। কিন্তু নিজেই নাগরিকত্ব পঞ্জিকরণের কর্মী বলে জাহিদুর জানিয়ে দিয়েছলেন, এসব দিয়ে হবে না। জন্ম দাতা পিতা বা মাতার ভারতীয় হওয়ার লিঙ্ক ডকুমেন্ট লাগবে। এসব শুনেই ছুটে এসেছিলেন বাপের বাড়ি কোচবিহারের পুন্ডিবাড়িতে। বাবার কাছ থেকে রাজ আমলের একটি দলিল নিয়ে গিয়ে এনআরসি ক্যাম্পে আবেদন পত্রের সাথে জমা দিতে যান বিউটি। আর সেই প্রমান দেখে অবাক সকলেই। এবার তাঁকে আটকায় কে? সম্প্রতি নাগরিকত্বের খসড়া তালিকা প্রকাশ হয়েছে, সেখানে বিউটির নাম উঠেছে। খবর পেয়ে সাংবাদিকরা পর্যন্ত ছুটে গিয়েছে রাজ আমলের দলিল জমা দেওয়া বিউটির বাড়িতে। আর তিনি গর্বের সাথে বলছেন, “রাজার দেশের মানষি হামরা। হামার আরও নাম না ওঠে। কিসের ওটে ভয়!”

১৯৫০ সালের ৯ জুনের একটি দলিল। রাজ আমলের ৭ টাকার স্ট্যাম্প পেপারের দলিলে উল্লেখ করা রাম কুমার বর্মণের থেকে বিউটি বিবির পূর্ব পুরুষরা একটি জমি কিনে নিয়েছেন। নিয়ম অনুযায়ী ১৯৮৭ সালের আগের ভারতীয় নাগরিক থাকার যে কোন রকম প্রমাণপত্র দিতে হবে। সেখানে বিউটি সেই ১৯৫০ সালের কোচবিহার রাজাদের দলিলকে নাগরিকত্বের প্রমানপত্র হিসেবে জমা দিয়েছেন।

অন্যদিকে আবার উদ্বেগে রয়েছেন বিউটির শাশুড়ি জসিয়া বিবি। নাগরিকত্বের খসড়া তালিকায় তাঁর নাম নেই। জসিয়া বিবির বাপের বাড়িও কোচবিহারের চিলাখানায়। বৌমা রাজ আমলের দলিল এনেছে দেখে জসিয়া বিবিও বাপের বাড়ি এসে খোঁজ নিয়েছেন। কোচবিহারে এসে বিভিন্ন সরকারি দফতরে ছুটে বেড়িয়েছেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত কাজ হয় নি। অফিসাররা নাকি জানিয়েছেন, ১৯৭৪ সালের ২৮ আগস্ট কোচবিহারে এক আন্দোলনের জেরে কোর্ট চত্বরে অগ্নি সংযোগের ঘটনা ঘটে। সেখানে অনেক দলিল পত্র পুড়ে ছারখার হয়ে যায়। তাই সে সময়কার জমির দলিল পত্র উদ্ধার করে এখন আর দেওয়া সম্ভব নয়। ৭ আগস্ট থেকে আবার নতুন করে আবেদন করার কাজ শুরু হবে। জাসিয়া বিবি এখনও আদি বাসিন্দা হওয়ার প্রমাণপত্র জোগাড় করার চেষ্টায় আছেন।

দুই রাজ্যের সীমান্ত জেলা কোচবিহার ও ধুবরি। প্রায় একই রকম সংস্কৃতি, ভাষাভাষীর মানুষ এই দুই জেলায়। বিভিন্ন ধরনের কেনাকাটা, চিকিৎসা, লেখাপড়া সহ প্রায় সমস্ত রকম কাজে একে অপরের উপড়ে নির্ভরশীল এই দুই জেলার মানুষ। তাই রাজ্য পৃথক হলেও দুই জেলার মানুষের মধ্যে আত্মীয়াতাও গড়ে উঠেছে। কোচবিহার জেলার অনেক মেয়ের যেমন বিয়ে হয়েছে ধুবরিতে, তেমনি ধুবরি জেলার অনেক মেয়ের শ্বশুর বাড়ি কোচবিহারে। আবার এক সময় অশান্ত অসম থেকে একটু নিরাপত্তা নিয়ে শান্তিতে থাকতে অসমের মানুষ কোচবিহার জেলায় এসে এক দু কাঠা জমি কিনে বাড়ি করে রেখেছেন। কেউ কেউ দুই জেলাতেই থাকেন। কারুর ব্যবসা বানিজ্য অসমে বলে সব সময় থাকা হয় না। তবে মাঝে মধ্যে এসে থেকে যান। এভাবেই সম্পর্ক নিবির হয়েছে ক্রমশ। কিন্তু সমস্যা তৈরি হল যখন নাগরিকত্ব পঞ্জিকরণের কাজ শুরু হল। অসমের যারা আদি বাসিন্দা তারা নিজের প্রমাণপত্র দিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু প্রতিবেশী রাজ্য থেকে বিয়ে করে আনা বৌয়ের প্রমান পত্র জোগাড় করতে গিয়ে সমস্যায় পড়তে হয়েছে অনেককেই। যেমন বিউটি রাজ আমলের দলিল দেখিয়ে পাড় পেয়েছেন। আর তাঁর শাশুড়ি আটকা পড়েছেন বাপের বাড়ির নাগরিকত্বের কোন প্রমান জোগাড় না করতে পেরে।

সিলেবাস বহির্ভূত প্রশ্নপত্র, গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ামকে ঘেরাও করে বিক্ষোভ ছাত্র-ছাত্রীদের

প্রনব মণ্ডল, ১ আগষ্ট: গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা নিয়ামকে ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাল ছাত্র-ছাত্রীরা। ৩১ জুলাই থেকে গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ কলেজ গুলিতে শুরু হয়েছে স্নাতক স্তরের পরীক্ষা। কিন্তু পরীক্ষার্থীদের অভিযোগ, পরীক্ষায় সিলেবাসের বাইরে থেকে প্রশ্ন এসেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী অ্যাওয়ে সেন্টারে পরীক্ষা দিচ্ছেন পড়ুয়ারা। পুরাতন মালদার গৌড় কলেজের পরীক্ষার্থীদের সিট পড়েছে গাজোল কলেজে। এদিন সেখানেই পরীক্ষা দিতে যান গৌড় কলেজের পরীক্ষার্থীরা। সেখানেই সমস্যায় পড়েন ফুড অ্যান্ড নিউট্রিশন বিভাগের প্রথম বর্ষের পড়ুয়ারা। তাঁদের অভিযোগ, তাঁরা যা প্রশ্নপত্র পেয়েছে তাঁর ৮০ শতাংশের বেশি সিলেবাস বহির্ভূত। যার জেরে প্রথম পত্রের প্রশ্নপত্র হাতে পেয়েই তাঁদের মাথায় হাত পড়ে।

গাড়ির ধাক্কায় মৃত ৬, আহত ৪

ওয়েব ডেস্ক, ১ আগস্টঃ ছোট গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু হল ছয় জনের। ঘটনায় আহত হয়েছে আরও চারজন। বুধবার সকাল নয়টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে কোয়েম্বাতোরের সুন্দরাপুরমে।

জানা গিয়েছে, বুধবার সকাল নয়টা নাগাদ বাসের জন্য অপেক্ষা করছিলেন যাত্রীরা। সেই সময় পোলাচ্চি থেকে কোয়েম্বাতোরের দিকে যাওয়া একটি ছোট নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসের জন্য অপেক্ষারত যাত্রীদের ধাক্কা মারে। এরপর গাড়িটি রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে থাকা একটি অটোরিকশায় ধাক্কা মারে। ওই ঘটনায় ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় দুই মহিলা সহ ছয়জনের। ঘটনায় আহত হয়েছে আরও চারজন। আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওই ঘটনায় উত্তেজিত স্থানীয় বাসিন্দারা গাড়ি চালককে ধরে বেধড়ক মারধোর করেন। ওই ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় পুলিশ। ওই গাড়ি চালককে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। সে মদ্যপান করে ছিলেন কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

চকচকা শিল্পতালুকে তৈরি হচ্ছে নতুন ২৪টি শিল্প ইউনিট

কলকাতা, ১ আগস্টঃ কোচবিহারের চকচকা শিল্পতালুকে নতুন ২৪টি শিল্প ইউনিট তৈরি হতে চলেছে। ২১টি ইউনিট ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকারের কাছে জমির জন্য টাকা জমা দিয়েছে। কোচবিহারের শিল্প তাকুল নিয়ে বিধায়ক নগেন্দ্র নাথ রায়ের প্রশ্নের উত্তরে বিধানসভায় একথা জানান শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী আমিত মিত্র। মঙ্গলবার কোচবিহারের ফরোয়ার্ড ব্লক বিধায়ক নগেন্দ্রনাথ রায় বিধানসভায় একটি প্রশ্ন তোলেন। তিনি জানতে চান, কোচবিহারের চকচকা শিল্প বিকাশ কেন্দ্রের অব্যবহৃত জমিতে রাজ্য কি কোনও শিল্প আনার পরিকল্পনা করছে? করে থাকলে তা এখন কোন পর্যায়ে আছে?

অমিত মিত্র জানান, কোচবিহারের ২০.৬৮ একর জমিতে শিল্প ও কারখানার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। কোচবিহারে চকচকা শিল্পতালুকে নতুন ২৪টি শিল্প ইউনিট তৈরি হতে চলেছে। ২১টি ইউনিট ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকারের কাছে জমির জন্য টাকা জমা দিয়েছে। ২১টির জন্য ইতিমধ্যে ১৬.৫১ একর জমি শিল্পোদ্যোগীদের দেওয়া হয়েছে।” এই শিল্প এলে রাজ্যে ২১৫৬ জনের কর্মসংস্থান হবে। ২৪টি শিল্প ইউনিটে বিনিয়োগ করা হয়েছে ৬৮৩১.৯৮ লাখ টাকা।

বিধানসভায় এই শিল্প নিয়ে আরও তথ্য দিয়ে অমিত মিত্র বলেন, “এতদিন সরকারের শিল্পভাবনায় জুটপার্ক ছিল। এখন মাল্টি-প্রোডাক্ট পার্কের কথাও ভাবছে সরকার। ২১টি ইউনিটে কাজ শুরু হয়েছে। সেখানে কাজ করছেন ২০৩৮ জন।” বিধানসভায় অতিরিক্ত প্রশ্নের উত্তরে অর্থমন্ত্রী জানান, শুধু কোচবিহার নয়, যে সব জেলায় অব্যবহৃত জমি পরে আছে, সেখানেই শিল্পস্থাপনের জন্য উদ্যোগ নিচ্ছে রাজ্য সরকার। রাজ্যের যেসব কারখানা বন্ধ আছে বা ধুঁকছে, সেগুলো নিয়েও সদর্থক ভাবনা-চিন্তা করা হবে।

‘পায়ের ছাপ’ ঘিরে বাঘের আতঙ্ক তুফানগঞ্জের চিলাখানায়

তুফানগঞ্জ, ১ আগস্টঃ অচেনা জন্তুর পায়ের ছাপ ঘিরে বাঘের আতঙ্ক দেখা দিয়েছে তুফানগঞ্জের দক্ষিন চিলাখানা গ্রামে। বুধবার সকাল বেলা এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। গ্রামের অনেকেই মনে করছেন ওগুলি চিতা বাঘেরই পায়ের ছাপ।

জানা গিয়েছে, এদিন সকালে দক্ষিন চিলাখানা গ্রামের বাসিন্দা কৃষ্ণ সরকার বাড়ির পাশেই দাঁত মাজতে মাজতে হাঁটছিলেন। সেই সময় মাটির রাস্তায় অজ্ঞাত পরিচয় জন্তুর কিছু পায়ের ছাপ দেখতে পান। ওই পায়ের ছাপ দেখে তার সন্দেহ হলে পাশের বাড়ির একজন বয়স্ক ব্যক্তিকে ডেকে দেখান। এই ভাবে আশেপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে জড়ো হয়। সেখানে উপস্থিত বেশির ভাগ মানুষই ওই পায়ের ছাপ কীসের, তা সঠিক করে বলতে পারেন নি। তবে ওই পায়ের ছাপ গুলি চিতা বাঘের পায়ের ছাপের মত বলে অনেকেরই অনুমান। আর এই নিয়েই গ্রামে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। যদিও এই বিষয়ে গ্রামবাসীরা বন দফতরের দ্বারস্থ হয়নি বলে জানা গিয়েছে। এমনকি পুলিশের কাছেও এই বিষয়ে কিছু জানায়নি বলে জানা গিয়েছে। তবে এলাকায় চাপা আতঙ্ক রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

গ্রামের বাসিন্দা কৃষ্ণ সরকার বলেন, “আজকে সকাল বেলা বাড়ির সামনে ব্রাশ করছিলাম। তখন হাঁটাহাঁটি করার সময় হঠাৎ করে কাদা রাস্তায় কিছু অজানা জন্তুর পায়ের ছাপ দেখি। তা দেখে আমার সন্দেহ হয়। পাশের বাড়ির একজনকে ডেকে আনি। আরও কয়েকজন আসেন। সবাই এই পায়ের ছাপ নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন। আমরা ঠিক বুঝতে পাচ্ছি না এটা কীসের পায়ের ছাপ। একটু আতঙ্কে রয়েছি।”

বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত বিপ্লব দেবকে নিয়ে সরব সোশ্যাল মিডিয়া

ওয়েব ডেস্ক, ১ আগস্টঃ ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত হিসেবে সোশ্যাল মিডিয়ায় কটাক্ষ করে অবিলম্বে তাঁকে প্রমাণ করতে হবে তিনি ভারতীয়৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁকে ঘিরে চলছে বিভিন্ন মন্তব্য৷ ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর বিপ্লব দেবের বহু আত্মীয় বাংলাদেশ থাকেন৷ তাহলে তাঁর নাগরিকত্ব কী হবে? এমনকী মুখ্যমন্ত্রীর হওয়ার সময়ে বাংলাদেশে থাকা বিপ্লববাবুর আত্মীয়দের ছবি ও মন্তব্য প্রকাশ করেছিল দুই দেশের সংবাদ মাধ্যম৷ সেই সব মন্তব্য ঘিরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত হিসেবে কটাক্ষ করে দাবি উঠছে অবিলম্বে তাঁকে প্রমাণ করতে হবে তিনি ভারতীয়৷

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর পৈত্রিক বাড়ি বাংলাদেশে৷ সেখানকার চট্টগ্রাম বিভাগের কচুয়া উপজেলার সহদেব পুর পূর্ব ইউনিয়নের মেঘদাইর গ্রামেই তাঁর আদিবাড়ি৷ সেখানে থাকেন বিপ্লব দেবের কাকা প্রাণধন দেব৷ ভাইপো মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর তিনি জানিয়েছিলেন, ১৯৭১ সালের ‘মুক্তিযুদ্ধ’ চলাকালীন বিপ্লব দেবের বাবা-মা ভারতে চলে গিয়েছিলেন৷ ভারতে যাওয়ার পর ত্রিপুরার মাটিতে জন্মগ্রহণ করেন বিপ্লব৷

অসমের নাগরিক পঞ্জীকরণ খসড়ার তালিকা প্রকাশ ঘিরে দেশজুড়ে শুরু হয়েছে প্রবল বিতর্ক। চল্লিশ লক্ষ মানুষের পরবর্তী পরিস্থিতি কি হবে তা নিয়ে নিয়ে রয়েছে আশঙ্কা। তারই মাঝে সোশ্যাল মিডিয়া সরব ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর বয়ানে৷ মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন, অসমের মতো এনআরসি জারি করার পরিস্থিতি নেই ত্রিপুরায়৷ নিজের অবস্থা বুঝতে পেরেই কি আগে ভাগে পিছু হটেছেন মুখ্যমন্ত্রী? এই প্রশ্নও ঘুরছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

কিশোরীকে গণধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার ৩

বিশ্বজিৎ সরকার, ১ আগস্টঃ এক কিশোরীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠল তিন বন্ধুর বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছয়টা নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে শিলিগুড়ির দূর্গানগর কলোনিতে। অভিযোগের ভিত্তিতে ওই তিন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে ভক্তিনগর থানার পুলিশ। আজ তাঁদের আদালতে তোলা হবে।

পরিবার সুত্রে জানা গিয়েছে, এদিন সন্ধ্যায় ওই কিশোরী তিন বন্ধুকে নিয়ে খেলা করছিল। অভিযোগ, সেই সময় ওই তিন বন্ধু ধর্ষণ করে কিশোরীকে। এরপর বাড়ি ফিরে ওই কিশোরী গোটা ঘটনাটি পরিবারের লোকেদের জানায়। এরপর রাতেই নির্যাতিতা কিশোরীর পরিবার ভক্তিনগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে তিন অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বুধবার ধৃত তিনজনকে শিলিগুড়ি আদালতে তোলা হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে।