সারাদিনের সেরা খবর – ১৭ আগষ্ট ২০১৮

সারাদিনের বাছাই করা খবর
প্রতিদিন আমাদের ওয়েবসাইট ভিসিট করুন প্রতিদিনের গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলি পাবার জন্য।

অসুস্থ বীরভূমের দাপুটে নেতা অনুব্রত মণ্ডল

বীরভূম, ১৭ আগস্টঃ অসুস্থ বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। এদিন তার স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটায় তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে কলকাতার এসএসকেএমে ৷ ইতিমধ্যে তাঁর জন্য তৈরি হয়েছে ১০ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, পেটে ব্যথা ও রক্তচাপের সমস্যা বৃদ্ধি পেয়েছে বীরভূমের ওই দাপুটে নেতার। ডায়াবেটিসেরও সমস্যা রয়েছে তাঁর ৷ আপাতত চিকিৎসকদের নজরদারিতে রয়েছেন তিনি ৷ অন্যদিকে প্রিয় নেতার স্বাস্থ্যের খবর নিতে হাসপাতালে ভিড় জমাতে শুরু করেছেন তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরা।

রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন হল বাজপেয়ির

ওয়েব ডেস্ক, ১৭ আগস্টঃ পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ির শেষকৃত্য সম্পন্ন হল দিল্লির স্মৃতিস্থলে। তাঁর মেয়ে নমিতা ভট্টাচার্য মুখাগ্নি করেন। স্মৃতিস্থলে অটল বিহারী বাজপেয়িকে শেষশ্রদ্ধা জানান দেশের তিন বাহিনীর প্রধান। শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সহ অন্য মন্ত্রীরা। শ্রদ্ধা জানান উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু। স্মৃতিস্থলে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা।

গতকাল বিকেল ৫টা ৫ মিনিটে দিল্লির এইমস এ শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন ভারতরত্ন প্রাক্তন প্রধান মন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ি। আজ সকাল সাড়ে সাতটা থেকে সাড়ে আটটা পর্যন্ত সাধারণ মানুষ কৃষ্ণ মেনন মার্গে গিয়ে প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানান রাজনৈতিক দলের নেতা, মন্ত্রী ও সমাজের বিভিন্ন মহলের লোকজন। এরপর সকাল ৯টা নাগাদ মরদেহ দীন দয়াল উপাধ্যায় মার্গে বিজেপি-র প্রধান কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয় তার দেহ। সেখান থেকে বাজপেয়ির মরদেহ স্মৃতিস্থলে নিয়ে আসা হয়।

অটল বিহারী বাজপেয়ির দেহ নিয়ে অন্তিমযাত্রার কথা মাথায় রেখে দিল্লির পুলিশের তরফে আজ যান চলাচলের ক্ষেত্রে বিশেষ নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। কৃষ্ণ মেনন মার্গ, আকবর রোড, জনপথ ও ইন্ডিয়া গেটমুখী সমস্ত রাস্তা আজ সকাল আটটা থেকে সর্ব সাধারণের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়। এছাড়া কাশ্মীরি গেট থেকে শান্তিবন ও রাজঘাটমুখী রাস্তাতেও যান চলাচল বন্ধ রাখা হয়।

কলকাতার ৮টি নতুন রুটে এসি ও নন এসি বাস পরিষেবা চালু করল পরিবহণ দফতর

ওয়েব ডেস্ক, ১৭ আগস্টঃ আজ থেকে কলকাতার আটটি নতুন রুটে এসি ও নন এসি বাস পরিষেবা চালু করল রাজ্য পরিবহণ দফতর৷ এর মধ্যে অধিকাংশই সল্টলেক রুটের বাস৷ অফিস যাত্রীদের আশা, এই বাসগুলি ঠিকমতো চললে সল্টলেকে অটো দৌরাত্ম্যের হাত থেকে কিছুটা হলেও রেহাই মিলবে যাত্রীদের৷ শহরের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সেক্টর ফাইভ-নিউ টাউনমুখী যেসব বাস চলে, তাতে ব্যাপক ভিড় হয়৷

বিশেষত, অফিস টাইমে ঠাসা ভিড় থাকে বাস গুলি। সেই চাপ কমাতে ছ’টি রুটে ৩৮টি এসি মিডি বাস এবং বাকি দু’টি রুটে চারটি নন-এসি বাস চালালো পরিবহণ দফতর৷ এই এসি বাসের রুটগুলি হল, এসি ৩৫ (মিল্ক কলোনি-সাপুরজি), এসি ৩৬ (নিউ টাউন-বারাসত), এসি ৩৮ (চিড়িয়ামোড়-ইকো স্পেস), এসি ৩০ এস (উল্টোডাঙা স্টেশন-সাপুরজি), এসি ২বি (রথতলা-বালিগঞ্জ) এবং এসি ৩০ (লেক টাউন-হাওড়া)৷ নন-এসি বাসের রুটগুলি হল, এম এক্স ৩ (কলকাতা স্টেশন-বিমানবন্দর ১ নম্বর গেট) এবং এস ১৪ ডি (সল্টলেক জিডি টার্মিনাস-গড়িয়া)। জানা গিয়েছে, নতুন রুটগুলিতে বাস চালাবে পশ্চিমবঙ্গ পরিবহণ নিগম। গতকাল আনুষ্ঠানিকভাবে রুটগুলিতে এই বাস গুলি চালু হওয়ার কথা ছিল৷ কিন্তু সেই অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়।

স্কুটিকে বাঁচাতে গিয়ে ট্রেকার উল্টে জখম ৫ শিক্ষক শিক্ষিকা

তুষার কান্তি বিশ্বাস, ইসলামপুরঃ একটি স্কুটিকে বাঁচাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নয়নজুলিতে উল্টে গেল যাত্রীবাহী ট্রেকার। এই ঘটনায় সাত জন জখম হয়েছেন। তাদের মধ্যে পাঁচজন শিক্ষক শিক্ষিকা রয়েছেন। আজ বিকেলে ইসলামপুর ব্লকের ভুজাগাওঁ ফজলুল হক এনএস হাই মাদ্রাসা থেকে ট্রেকারে করে ওই শিক্ষক শিক্ষিকারা বাড়ি ফিরছিলেন। রিংকুয়া নামক স্থানে দুর্ঘটনাটি ঘটে। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ইসলামপুর হাসপাতালে নিয়ে আসে। পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমেছে।

বিদ্যালয়ের সহ শিক্ষক মাসুম ইসলাম জানান, “একটি স্কুটিকে বাঁচাতে গিয়েই দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ওই ট্রেকারটি। এরপর স্থানীয় মানুষজন এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করে ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসে। সেখানে তিনজনকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হলেও ইয়াহিয়া খান ও আব্দুল রউফ মোল্লা নামে দুই জনের চিকিৎসা চলছে।”

গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে আগুন, আতঙ্কে প্রতিবেশীরা

শ্যাম বিশ্বাস, উত্তর ২৪ পরগনাঃ গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে বাড়িতে আগুন লেগে উত্তর যাওয়ায় আতঙ্ক ছড়াল চব্বিশ পরগনার ঠাকুরনগরের শিমূলপুর এলাকায়। আজ দুপুরে স্থানীয় বণিক পাড়ার অপু বণিকের বাড়িতে গ্যাস সিলিন্ডার ব্লাস্ট হয়ে এই বিপত্তি হয়।

তবে এই ঘটনায় পরিবারের তেমন কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলে জানা গিয়েছে। প্রথমে এলাকাবাসী আগুন নেভানোর কাজে হাত লাগান। খবর পেয়ে পরে বনগাঁ এবং গোবরডাঙ্গা থেকে ঘটনাস্থলে আসে দমকলের দুটি ইঞ্জিন। দমকল কর্মীদের চেষ্টায় এরপর আগুন নিভে যায়। তবে রান্না ঘরটি এবং সেখানে থাকা ফ্রিজ আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

কথা না শোনায় পুত্র বধূকে মার শ্বশুরের, বাঁচাতে এসে আহত প্রতিবেশী

প্রনব মন্ডল, মালদা: কথা না শোনায় শ্বশুরের হাতে আক্রান্ত হলেন পুত্রবধূ। তাঁকে বাঁচাতে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছেন ৬০ বছরের এক প্রতিবেশীও। গতকাল রাতে ঘটনাটি ঘটেছে বামনগোলা থানার চাঁদপুর গ্রামে। আক্রান্ত দু’জনকে রাতেই মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই ঘটনায় এখনও পুলিশে কোনও অভিযোগ দায়ের না হলেও ঘটনার পর থেকেই বাড়ি থেকে বেপাত্তা অভিযুক্ত শ্বশুর।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বামনগোলা থানার চাঁদপুর গ্রামের বাসিন্দা আনোয়ার হোসেনের সঙ্গে কিছুদিন আগে বিয়ে হয় আলটিনা বিবির। আনোয়ার পেশায় রিকশাচালক। সকাল হলেই রিকশা নিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় সে। গতকালও তার ব্যতিক্রম হয়নি। স্বামীর অবর্তমানে বাড়ির কাজকর্মে ব্যস্ত ছিলেন আলটিনা। বাড়ির কিছু জিনিসপত্র এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় সরাচ্ছিলেন তিনি। তাঁকে সেই কাজ করতে বারন করেন শ্বশুর আসিরুদ্দিন শেখ। শ্বশুরের কথা শুনতে পাননি ওই গৃহবধূ। এতেই রেগে যান আসিরুদ্দিন।

এরপর পুত্রবধূকে বেধড়ক মারতে শুরু করেন তিনি। চর-থাপ্পরের সঙ্গে ঘরের চৌকাঠ দিয়েও মারা হয়। মাথা ফেটে যায় আলটিনার। তাঁর চিৎকারে প্রতিবেশী ৬০ বছরের আজিমুদ্দিন রহমান তাঁকে বাঁচাতে ছুটে এলে তাকেও চৌকাঠ দিয়ে তাঁর মাথাতেও আঘাত করে আসিরুদ্দিন। মাথা ফেটে যায় আজিমুদ্দিনেরও। এরপর গ্রামের লোকজন ছুটে এসে আসিরুদ্দিনকে নিরস্ত করে। খবর পেয়ে ছুটে আসেন ওই গৃহবধূর স্বামী। তড়িঘড়ি আহত দু’জনকে স্থানীয় বামনগোলা গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। রাতে তাঁদের শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় তাঁদের মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে রেফার করা হয়।এদিকে ঘটনার পরেই বাড়ি থেকে পলাতক অভিযুক্ত শ্বশুর।

চুরি যাওয়া সামগ্রি উদ্ধার করে মালিককে ফেরত দিল পুলিশ

প্রণব মণ্ডল, মালদাঃ ফের চুরি যাওয়া সামগ্রি উদ্ধার করে প্রকৃত মালিকদের হাতে তুলে দিল ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। ইংরেজবাজার থানার বিভিন্ন প্রান্তে হানা দিয়ে চুরি সামগ্রি গুলি উদ্ধার করে পুলিশ। শুক্রবার থানা প্রাঙ্গন থেকে বাইক মোবাইল সহ বিভিন্ন সামগ্রি গুলি তুলে দেওয়া হয় পুলিশের পক্ষ থেকে।

পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, চুরি যাওয়া ১৮টি মোটরবাইক, নামীদামি কোম্পানীর ১৮টি মোবাইল, একটি টোটো, একটি দেবতার সোনার অলঙ্কার ও কম্পিউটার সামগ্রি উদ্ধার হয়। শুক্রবার থানা প্রাঙ্গন থেকে প্রকৃত মালিকদের হাতে চুরি সামগ্রি গুলি তুলে দেওয়া হয়। এদিন সেখানে উপস্থিত ছিলেন মালাদা জেলা পুলিশ সুপার অর্নব ঘোষ, ইংরেজবাজার থানার আইসি পুর্ণেন্দু কুন্ডু সহ অনান্য আধিকারিকেরা।

জানা গেছে, গত কয়েকমাসে ধরে ইংরেজবাজার থানার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মোটর বাইক মোবাইল সহ সোনার অলঙ্কার চুরির ঘটনা ঘটে। ইংরেজবাজার থানায় অভিযোগ দায়ের হলে তদন্তে নামে পুলিশ। তদন্তে নেমে ইংরেজবাজারের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে চোরাই সামগ্রি গুলি উদ্ধার করে। এদিন নথিপত্র যাচাই করে সামগ্রি গুলি তুলে দেওয়া হয়। চুরি যাওয়া সামগ্রি গুলি ফেরৎ পেয়ে জেলা পুলিশ প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন সকলে।

মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগে সরকারি চাকুরির নিয়োগ পত্র পেলেন প্রায়ত সাংবাদিকের স্ত্রী

শুভজিৎ পন্ডিত,আলিপুরদুয়ার: প্রায়ত সাংবাদিক রাজকুমার মোদকের স্ত্রীকে পর্যটন দপ্তরের নিয়োগ পত্র দিল রাজ্য সরকার। মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি মতো আজ শিলিগুড়িতে জার্নালিস্ট ক্লাবে এক অনুষ্ঠানে প্রায়ত সাংবাদিকের স্ত্রীর হাতে নিয়োগ পত্র তুলে দেন এক্রিডিয়েশন কমিটির চেয়ারম্যান বিশ্ব মজুমদার, কলকাতা প্রেস ক্লাবের সভাপতি স্নেহাশিস সুর, সম্পাদক কিংশুক প্রামানিক। উপস্থিত ছিলেন শিলিগুড়িতে জার্নালিস্ট ক্লাবে সম্পাদক অংশুমান চক্রবর্তী সহ আরও আনেকে।

আট মাস আগে প্রায়ত হন ফালাকাটার সাংবাদিক রাজকুমার মোদক। তার মৃত্যুর পর দুই সন্তানকে নিয়ে কষ্টের মধ্যে সংসার চালাতে হচ্ছিল স্ত্রী অনিমা মোদককে। গত ১২ জুলাই মুখ্যমন্ত্রীকে সেকথা জানান উত্তরবঙ্গের সাংবাদিকেরা। মুখ্যমন্ত্রী প্রয়াত রাজকুমারের স্ত্রীকে সরকারি চাকরির প্রতিশ্রুতি দেন। মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি মতো আজ শিলিগুড়ি জার্নালিস্টস ক্লাবে এসে এক্রিডিয়েশন কমিটির চেয়ারম্যান শ্রী বিশ্ব মজুমদার ও প্রেস ক্লাব অব কলকাতার কর্মকর্তারা অনিমা মোদকের হাতে পর্যটন দপ্তরের নিয়োগপত্র তুলে দেন। নিয়োগ পত্র হাতে পেয়ে অনিমা দেবী মুখ্যমন্ত্রী ও সকল সাংবাদিক পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

মাটির দেওয়াল চাপা পড়ে মৃত ১ আহত ২

দক্ষিণ ২৪ পরগনা, ১৭ আগস্টঃ মাটির দেওয়াল চাপা পড়ে মৃত্যু হল এক কিশোরের। ওই ঘটনায় আহত হয়েছে আরও দু’জন। মৃত ওই কিশোরের নাম ফাইয়াজ শেখ(৫)। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুর থানার মেথুর মোড় এলাকায়। ঘটনার জেরে শোকের ছায়া নেমেছে এলাকায়।

জানা গিয়েছে, নিম্নচাপের জেরে গত কয়েকদিন ধরে লাগাতার বৃষ্টি চলছে এলাকায়। এতেই মাটির দেওয়াল নরম হয়ে ধসে যায়। পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রামের রাস্তা দিয়ে দুই বন্ধু মসিবুল শেখ ও আরসাদ শেখের সঙ্গে খেলতে খেলতে বাড়ি ফিরছিল ফাইয়াজ। সেই সময় ওই বাড়ির একাংশ ভেঙ্গে পড়ে তাঁদের গায়ের উপর। ওই ঘটনায় ওই তিন কিশোরকে উদ্ধার করে আমতলা গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকেরা ফাইয়াজকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। অন্য দুই কিশোরের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের কলকাতায় স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

পুলিশের কার্য্যালয় লক্ষ্য করে গ্রেনেড হামলা, আহত ৪

ওয়েব ডেস্ক, ১৭ আগস্টঃ পুলিশের কার্য্যালয় লক্ষ্য করে গ্রেনেড হামলা জঙ্গিদের। ওই ঘটনায় আহত হয়েছেন চারজন সাধারণ নাগরিক। শুক্রবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে পুলওয়ামা জেলার অবন্তিকাপোরায় জেলা পুলিশের কার্য্যালয়ে। জানা গিয়েছে, শুক্রবার দুপুরে পুলওয়ামা জেলার অবন্তিকাপোরায় জেলা পুলিশের কার্য্যালয়ের মূল ফটকের দিকে গ্রেনেড ছোড়ে জঙ্গিরা। পুলিশ জানিয়েছে, রাস্তার উল্টোদিক থেকে গ্রেনেড ছোড়ায় লক্ষ্যভ্রষ্ট হয় গ্রেনেড।

অন্যদিকে, এদিন সকাল থেকেই সেনা-জঙ্গি গুলির লড়াইয়ে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বান্দিপোরা জেলার পশ্চিমাংশ। রুটিন তল্লাশি চলার সময় শুক্রবার ভোরে নিরাপত্তাবাহিনীর কাছে বিশেষ সূত্রে খবর যায় ডেউটি গ্রামে ঘাঁটি গেড়েছে জঙ্গিরা। খানিক ক্ষণের মধ্যেই সেখানে পৌঁছয় নিরাপত্তাবাহিনী। সেনাদের গ্রামে ঢুকতে দেখেই গ্রামের বাড়ি থেকে গুলি চালাতে থাকে জঙ্গিরা। সেনাও ঘিরে ফেলে ওই এলাকা। দীর্ঘক্ষণ গুলি বিনিময় হয় দু’পক্ষের মধ্যে। ওই ঘটনায় ২২ নম্বর ব্যাটেলিয়নের এক জওয়ান আহত হন।

পুরনো বিবাদের জেরে এক বৃদ্ধকে মারধোরের অভিযোগ ৪ প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে

প্রণব মণ্ডল, মালদা: পুরনো বিবাদের জেরে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে এক বৃদ্ধকে মারধোরের অভিযোগ উঠল ৪ প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাত্রি নটা নাগাদ ইংরেজবাজার থানার খাসিমাড়ি এলাকায়। এরপর খবর পেয়ে পরিজনেরা আক্রান্ত ওই বৃদ্ধকে উদ্ধার করে রাতেই মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে সেখানেই চলছে তার চিকিৎসা। ওই ঘটনায় আক্রান্তের পরিবারের পক্ষ থেকে ইংরেজবাজার থানায় চারজনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, আক্রান্ত বৃদ্ধের নাম নিরঞ্জন মন্ডল (৬০)। তাঁর বাড়ি ইংরেজবাজার থানার মহদীপুর বেকি কালী মন্দির এলাকায়। জানা গিয়েছে,আক্রান্তর ছেলে রাজকুমার মন্ডল এর সাথে প্রতিবেশী বাসু ঘোষের বিবাদ ছিল। বৃহস্পতিবার সকালে তাদের মধ্যে বচসা হয়। সেই সময় বচসা থেমে যায়।

অভিযোগ, রাত্রি নটা নাগাদ মোটর বাইক নিয়ে নিরঞ্জন মন্ডল মালদা শহরের যাচ্ছিলেন, সেই সময় খাসিমারি এলাকায় নিরঞ্জন মন্ডলের পথ আটকায় বাসু ঘোষ ও তার দলবল বলে অভিযোগ। নিরঞ্জন মন্ডলকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে নির্জন এলাকায় ব্যাপক মারধর করে বলে অভিযোগ। লাঠির আঘাতে মাথা ফেটে যায় নিরঞ্জন বাবুর। মারধোর করার অভিযোগ উঠে বাসু ঘোষ সহ চারজনের বিরুদ্ধে। তবে কি কারণে ওই বৃদ্ধকে মারধরের ঘটনা তা তদন্ত শুরু করেছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ।