নৈরাজ্য সৃষ্টিকারী তৃণমূলকে রাজ্য থেকে উপড়ে ফেলা হবে : শিবরাজ সিং চৌহান

কার্ত্তিক গুহ, পশ্চিম মেদিনীপুর: “বিজেপি লোকতন্ত্রকে মরতে দেবে না। নৈরাজ্য সৃষ্টিকারী তৃণমূলকে রাজ্য থেকে উপড়ে ফেলা হবে।” খড়গপুরে সভা শেষ করে তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি এমনি মন্তব্য করলেন মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান।

Top News

এদিন তিনি আরও বলেন, “পশ্চিমবঙ্গে জরুরি অবস্থার মতো এক অভূতপূর্ব পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। এই সরকার সংবিধান মানছে না। গণতন্ত্রের সম্মান এরাজ্যে  লুন্ঠিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, আদিত্যনাথ যোগী, অমিত শাহ সহ বিজেপির অন্যান্য নেতাদের সভা করতে না দিয়ে বিজেপিকে আটকাতে চাইছে। সারা রাজ্যে তৃণমূলের গুন্ডা বাহিনী আতঙ্ক ছড়াচ্ছে।”

এদিন সিবিআই প্রসঙ্গে শিবরাজ সিং চৌহান বলেন, “কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাটি বিজেপির কথায় চলে না। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে তারা তদন্ত চালাচ্ছে। এরাজ্যে বিজেপিকে আটকানোর সব রকম ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে তৃণমূল সরকার। কিন্তু এই খেলা বেশিদিন চলবে না।”

বুধবার  দুপুর ১ টার সভা বিকেল চারটায় খড়্গপুরে সভা করলেন মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান। আজ তাঁর সভা হওয়ার কথা ছিল বহরমপুরে। তাই তিনি রাজ্য সরকারের অনুমতি নিয়েই আজ খড়গপুরের মোহনপুরে সভা  করেন। জেলা বিজেপি সূত্রের খবর, পশ্চিম মেদিনীপুরের জেলাশাসককে সভার অনুমতি চেয়ে চিঠি দিলেও জেলাশাসকের পক্ষ থেকে কোনও জবাব পাওয়া যায়নি। মাইক বাজানোরও কোনও অনুমতি দেওয়া হয়নি। ওই সভায় জনসমাগম ভালো না হ‌ওয়ায় কেন্দ্রী নেতৃত্বরা রাজ্য নেতৃত্বরা জেলার নেতৃত্বের উপর ক্ষুব্ধ হন। কার্যত ফাঁকা মাঠে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় ও রাজ্য নেতৃত্বরা।