পাঞ্জিপাড়ায় এলাকায় ফরওয়ার্ড ব্লক –তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীদের হাতাহাতি, আহত ৫

Top News

তুষার কান্ত বিশ্বাস, উত্তর দিনাজপুর: ফরওয়ার্ড ব্লক –তৃণমূল কংগ্রেসের সংঘর্ষে আহত ৫ জন। বুধবার ঘটনাটি ঘটেছে গোয়ালপোখর ব্লকের পাঞ্জিপাড়ায় এলাকায়। জানা গিয়েছে, এদিন পাঞ্জিপাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের তেলিয়াপোখরে ফরওয়ার্ড ব্লকের একটি জন সভা ছিল। গাড়িতে করে সেই জনসভায় আসছিলেন চাকুলিয়ার বিধায়ক আলি ইমরান রমর্জ (ভিক্টর)। অপর দিকে পাঞ্জিপাড়া বাজার এলাকায় চাকুলিয়ার বিধায়ক আলি ইমরান রমর্জকে(ভিক্টর) গ্রেপ্তারের দাবীতে তৃণমূলের পক্ষ থেকে ৩১ নং জাতীয় সড়কে অবরোধ কর্মসূচী চলছিল। স্থানীয় বাসিন্দাদের থেকে জানা গিয়েছে, ফরওয়ার্ড ব্লকের কর্মী ও সমর্থকরা মিছিল করে তেলিয়াপোখরে যাওয়ার পথে তৃণমূল কংগ্রেস ও ফরওয়ার্ড ব্লক কর্মীদের মধ্যে প্রথমে বচসা ও পরে হাতাহাতি হয়। ঘটনায় উভয়পক্ষের ৫ জন কর্মী আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। আহতদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠান হয়েছে। দুই দলের উত্তেজিত কর্মী সমর্থকদের স্বাভাবিক করতে পুলিশ মৃদু লাঠি চার্জ করে বলে জানা গিয়েছে। এরপরই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

কর্মীসভা শেষে চাকুলিয়ার বিধায়ক আলি ইমরান রমর্জকে(ভিক্টর) বলেন, “আমাকে আটকানোর মানে গোয়ালপোখর তৃণমূল নেতৃত্ব ভয় পাচ্ছে। জনগনের দাবি দাবা নিয়ে লাল ঝান্ডা তলায় এগিয়ে যাচ্ছি। তৃণমূল বলে লাল না কি সব মুছে গেছে। যদি লাল মুছে যায় তাহলে আজকের সভায় এত মানুষ আসত না। তৃণমূল ভয় পাচ্ছে তাই আমাকে আটকান হল। আমার গাড়ি ভেঙে দেওয়া হল। আমাদের কর্মীদের মাথাফাটিয়ে দেওয়া হল। গোয়ালপোখরে তৃণমূল নেতৃত্বদের পায়ের তলার মাটি সরে যাচ্ছে। তাই তারা বিরোধীদের দেখে ভয় পাচ্ছে।”

অপরদিকে তৃণমূল কংগ্রেস ব্লক নেতৃত্ব মাজার আলম জানান, “আমাদের ওখানে একটা অনুষ্ঠান ছিল। সেই সময় ফরওয়ার্ড ব্লকের কর্মী ও সমর্থকরা মিছিল করে তেলিয়াপোখরে যাওয়ার পথে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। যা মুখে নেওয়া যায় না। তারপর আমাদের কর্মীদের সাথে ওদের কর্মীদের বচসা ও পরে হাতা হাতি হয়।”