আবারও কলঙ্কিত বাংলার মাটি, বন্ধুকে ভয় দেখিয়ে গণধর্ষণ পশ্চিম মেদিনীপুরে

ওয়েব ডেস্ক, ৮জুলাইঃ এবার গণধর্ষণের অভিযোগ উঠল পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায়। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার ডেবরা থানার রাধামোহনপুর এলাকায় এক নাবালিকাকে গণধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। শনিবার রাতে ওই মেয়েটিকে তুলে নিয়ে গিয়ে একটু ‌দূরে‌ একটি ‌পাম্প‌হাউসে গণধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ। এই অভিযোগের ভিত্তিতে ইতিমধ্যে পুলিশ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পাঁচ জনের নামে একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তাদের মধ্যে চার জন গ্রেফতার হয়েছে। মেয়েটি এলাকায় একটি সোনপাপড়ি তৈরি ‌কারখানায় কাজ করে।

Top News

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, যারা এই গণধর্ষণকারীদের মধ্যে ‌শাসকদলের এক নেতার ছেলে রয়েছে। এলাকায় দোষীদের কঠোর শাস্তি দাবি করে রবিবার ডেবরা থানার সামনে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপির কিছু ‌সমর্থক। জানা গিয়েছে, কাজ শেষ করে শনিবার সন্ধ্যায় মেয়েটি এলাকার এক ছেলের সাথে বাড়ি ফিরছিল। সেই সময় অভিযুক্তরা ঐ ছেলেটি কে ভয় দেখিয়ে জোর করে মেয়েটি কে তুলে নিয়ে যায়। এই ছেলেটি ডেবরা থানায় এসে বিষয়টি জানায়।

রবিবার সকালে মেয়েটির বাড়ির লোক থানায় মামলা দায়ের করে। তবে পুলিশ জানিয়েছে ওই মেয়েটি কে তারা খুঁজে পাচ্ছেন না। মেয়েটির বাবা বিষয়টি জানার পর অসুস্থ হয়ে পড়েন। তার মা বলেন, , ‘আমার মেয়েকে কয়েকজন ‌ধর্ষণ করেছে। আমি চাই তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হোক। আর আমার মেয়েকে পুলিশ স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে দিক।’ গণধর্ষকরা প্রাথমিকভাবে নিজেদের স্বীকারোক্তি দিয়েছে বলে জানিয়েছে ডেবরা থানার পুলিশ। ধর্ষণ করার ছবি তারা তাদের মোবাইল ফোনে তুলে রাখে বলেও জানা গিয়েছে। জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী সামসুদ্দিন আহমেদ বলেন তারা চারজনকে গ্রেপ্তার করেছেন এবং ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।