স্বাধীনতা উদযাপনে অথর্ব এক বৃদ্ধার অন্যন্য নজির গড়ে তোলার ভিডিও ভাইরাল

ওয়েব ডেক্স, ১৫ আগস্টঃ পড়নে একটা ‘নাইট্রি’, কোমরে বাঁধা রয়েছে গামছা। হাতে দু-তিনটি ব্যাগ। তাতে কি আছে বোঝা যাচ্ছিল না। বয়সের ভারে প্রায় অথর্ব হয়ে পড়েছেন। তবু কোমর ভাঁজ করে একটা পায়ের উপড়ে হাত ভর দিয়ে কোন রকমে হেঁটে চলছেন। মুখে তাঁর একটাই স্লোগান ‘বন্দেমাতরম’। এরকম ভাবেই এক বৃদ্ধা এগিয়ে আসছেন স্বাধীনতা দিবসে পতাকা উত্তোলনের এক সরকারি অনুষ্ঠানের দিকে। সেখানে উপস্থিত অথিতি ও ‘গার্ড অফ অনার’ দেওয়ার জন্য লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা পুলিশ কর্মীরা তখন কার্যত অবাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে রয়েছেন। কি করা উচিত যেন কেউ বুঝে উঠতে পারছেন না। আচমকা একজন আটকাতে গেলেন বৃদ্ধাকে। তাঁকে এক ধমক দিয়ে সরিয়ে দিলেন তিনি। পেছন আওয়াজ আসল আসতে দিন। বৃদ্ধা এলেন এবং ফুল চেয়ে নিয়ে নিলেন। পতাকা উত্তোলনের বেদীর সামনে গিয়ে কয়েকবার হাত ঘুরিয়ে সেখানে ফুল দিলেন। মাটিতে সাজানোয় জন্য ব্যবহার করা আবীর নিয়ে কপালে দিলেন। আর একাধিকবার উচ্চারণ করলেন, “ বন্দেমাতরম, সুজলাং সুফলাং”।

আজ এমনি একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দাবী করা হয়েছে ঝাড়গ্রাম কোর্ট চত্বরে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে পতাকা উত্তোলনের সময় ওই ঘটনা ঘটেছে। স্বাধীনতা দিবস নিয়ে প্রত্যেক ভারত বাসীর আবেক জড়িয়ে আছে। দেশ জুড়ে কত ঘটনা ঘটছে। কেউ পতাকার অসম্মান করলে যেমন প্রতিবাদ করা হচ্ছে। তেমনি সম্মান জানানোর অন্যন্য নজির থাকলেও তাঁকে তুলে ধরা হচ্ছে গর্বের সাথে। গত বছর বন্যায় যখন অসমের এক শিক্ষক দুই শিশু ছাত্রকে নিয়ে এক বুক জলে দাঁড়িয়ে স্কুলের সামনে পতাকা উত্তোলনের ঘটনা গোটা দেশ জুড়ে শোরগোল ফেলে দিয়েছিল। এবার যেভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই বৃদ্ধার স্বাধীনতা উদযাপনের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে, তাতে সেটাও কম কিছু নয়। যেন এভাবেই তিনি দেশ ভক্তির অন্যন্য নজির স্থাপন করলেন ভারতবাসীর কাছে।