যৌন উত্তেজনা বাড়াবে চুম্বন ! কামাসূত্রের এই নানা ধরণের চুমু কথা জেনে সঙ্গীকে করে তুলুন তৃপ্ত

চুম্বন। না বলা সব কথা বলা হয়ে যায় চুম্বনের মাধ্যমে। আপনি আপনার সঙ্গীর জীবনে ঠিক কোন জায়গায় আছেন, অথবা আপনার সঙ্গীর জীবনে আপনার গুরুত্ব কতটা রয়েছে।একটু গভীর ভাবে অনুভব করলে এই সব কিছুর উত্তর মেলে সঙ্গীর চুম্বনের মাধ্যমে।

Top News

যৌন উত্তেজনা বাড়িয়ে তোলার প্রথম এবং প্রধান অবলম্বন হল এই চুম্বন । একটি গভীর চুম্বন দুটি মানুষের মধ্যে অনেক ধরনের অনুভূতির সৃষ্টি করে। অপার সুখ ও অপরিসীম তৃপ্তি দিতে পারে এই চুম্বন। মানুষের মতো চুম্বনেরও বৈচিত্র্য রয়েছে। ফ্লায়িং কিস, বাটারফ্লাই কিস, ফ্রেঞ্চ কিসের রকমভেদের কথা তো সকলেরই জানা। কিন্তু কামসূত্রে এমন অনেক চুম্বনের উল্লেখ রয়েছে, যার নাম আজও জেনে উঠতে পারেননি অনেকেই।

তবে জানেন কি কামসুত্রে উল্লেখ ছিল চুম্বনের কথা। প্রায় ২০০০ বছর আগে নানা ধরনের চুম্বনের বিষয়ে মানুষকে অবগত করেছিল কামসূত্র। কোনও কোনও ভারতীয় স্থাপত্যতেও যা চোখে পড়ে। ত্রিয়ক, সম্পুতক, সক্রতক তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য। এবার জেনে নেওয়া যাক এমনই কিছু অজানা চুম্বনের কথা। চলুন কামসূত্র চুম্বন নিয়ে কি বলেছে এবার একটু বিস্তারিত ভাবে জেনে নেই।

কোনও মহিলা যদি জোর করে চুমুর জন্য নিজের ঠোঁট বাড়িয়ে দেন, কিন্তু তা নড়াচড়া না করেন, তবে তাকে মেজার্ড কিস বা মাপা চুম্বন। আবার যখন কোনও মহিলা সামান্য অনিচ্ছাকৃতভাবেই কোনও পুরুষের ঠোঁটে ঠোঁট রাখেন এবং নিচের ঠোঁট দিয়ে পুরুষের ঠোঁটটি চেপে ধরেন, কিন্তু উপরের ঠোঁট নড়াচড়া করান না, তাকে বলে থ্রবিং কিস বা কম্পিত চুম্বন।

ব্রাশিং কিস হল এক ধরনের গভীর চুম্বন। যখন কোনও মহিলা চোখ বন্ধ করে পুরুষের ঠোঁটে ঠোঁট রাখেন এবং হাত দিয়ে পুরুষের চোখ ঢেকে দিয়ে নিজেকে সমর্পণ করেন, সেই স্টাইলকে বলে ব্রাশিং কিস।যৌনজীবন আরও সুখের করে তুলতে পার্টনাররা কামসূত্রে উল্লেখ রয়েছে, এমন কিছু চুমু ট্রাই করতেই পারেন। মহিলা চুমুর সময় পুরুষ উপরের ঠোঁট তাঁর মুখের ভিতর ধরা দেয়, তবে তা হল আপার লিপ কিস। কেউ তাঁর পার্টনারের দুটি ঠোঁটই যদি মুখের ভিতর রাখেন, সেই স্টাইলটি পরিচিত এনভেলপ কিস নামে।

ঝগড়া, ঘুম বা অন্যমনষ্ক থাকাকালীন ঠোঁটে স্নেহের পরশ ছুঁইয়ে দেওয়ার স্টাইলকে স্টিরিং কিসের আখ্যা দেওয়া হয়েছে। স্বামী বা পার্টনার রাতে দেরি করে বাড়ি ফিরে ঘুমিয়ে পড়া স্ত্রী বা পার্টনারকে চুমু খেয়ে জাগালে তাকে অ্যাওয়েকেনিং কিস বলে। আয়না, জল বা দেওয়ালের সামনে চুম্বনে লিপ্ত হলে তার প্রতিফলন ঘটে। এর নাম রিফ্লেকশন কিস বা প্রতিফলিত চুম্বন।

তবে সত্যি বলতে যৌন জীবনকে মধুর করে তুলতে চুম্বনের ভুমিকা অপরিসীম। দুজনের মধ্যে সম্পর্ক মজবুত করতে সঙ্গীর পছন্দ যেমন খেয়াল রাখতে হয় তেমনি মুড ভাল করেও দিতে পারে ছোট্ট একটা চুমু। অনেক সময় দেখা যায় অনেক দিনের ঝগড়া মান অভিমান সব দুরে সরে যায় জড়িয়ে ধরে গভীর চুম্বনের মাধ্যমে।