ডান্স বারে কাজ করেন স্ত্রী, বাধা না শোনায় এ কি করলেন স্বামী

ওয়েব ডেস্ক, ২৪ এপ্রিলঃ ডান্স বারে কাজ করতেন স্ত্রী। সেই কাজে বাধা দিয়েছিলেন স্বামী। কিন্তু স্বামীর কথা রাখেন নি স্ত্রী। আর এই রাগে তাঁকে শ্বাসরোধ করে খুন করে, দেহ আট টুকরো করে কেটে, ড্রামে ভরে পরিত্যক্ত স্থানে ফেলে দিলেন স্বামী। ঘটনাটি ঘটেছে নরপোলিতে।

Top News

জানা গিয়েছে, নরপোলিতে ২৮ বছরের হামিদ আনসারির সঙ্গে থাকতেন তার স্ত্রী ২৫ বছরের সাবিনাবিবি সরদার। পুলিশের এক শীর্ষ কর্তা জানিয়েছেন, শুক্রবার সকালে ভিওয়াণ্ডি পুলিশের কাছে স্থানীয়রা খবর দেন যে সোনেল গ্রামে একটি ড্রামে মহিলার দেহাংশ পাওয়া গিয়েছে। এরপরই তদন্তকারী দল গঠন করেন থানের পুলিশ সুপার শিবাজি রাঠোর।

তদন্ত তারা জানতে পারে ড্রামটি তারাপুরে তৈরি। সেটি ভিওয়াণ্ডির একটি দোকানে বিক্রি করা হয়েছিল। একটি গোডাউনকে ড্রামটি বিক্রি করা হয়েছিল। সম্প্রতি সেটি একটি দোকানে বিক্রি করা হয়। এরপর ওই দোকানের আশপাশের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে পুলিশ। জানতে পারে, অভিযুক্ত ড্রামটি দোকান থেকে কিনে একটি অটো করে নিজের বাড়িতে নিয়ে গিয়েছিল। এরপরই রহস্যের উন্মোচন হয়। গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্ত ওই যুবককে।