পুলওয়ামাকাণ্ডের জের, পাকিস্থানে টমেটো রফতানি করবে না চাষীরা

ওয়েব ডেস্ক, ২২ ফেব্রুয়ারিঃ কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতী জঙ্গি হামলায় শহীদ হয়েছে ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ান। পাকিস্থানের মদতে ওই হামলা ঘটানো হয়। এরপর থেকেই ক্ষোভে ফুঁসছে গোটা দেশ। দেশের মানুষ যুদ্ধংদেহি মেজাজে চলে গিয়েছেন। সকলেই চাইছেন পাকিস্তানকে যোগ্য জবাব দেওয়া হোক। শুধু দেশবাসীই নয়, শহিদের রক্ত যে বিফলে যাবে না সেই ইঙ্গিত ইতিমধ্যে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দফায় দফায় জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা সহ বাহিনীর সেনা আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসছেন রাজনাথ সিং।

Top News

শুধু সামরিক দিক থেকেই নয়, কূটনৈতিকভাবেও পাকিস্তানকে জবাব দিতে ছক কষছে ভারত। কী ভাবে আন্তর্জাতিক মহলে পাকিস্তানকে কোণঠাসা করা যায় তা নিয়ে উচ্চ-পর্যায়ের বৈঠক করছেন রাজনাথ। ইতিমধ্যে সর্বাধিক সুবিধাপ্রাপ্ত দেশ বা মোস্ট ফেভারড নেশনস-এর তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে পাকিস্তানকে। ফলে পাকিস্তানি আমদানিকৃত পণ্যের শুল্ক বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২০০ শতাংশ। পাকিস্তানে চা রপ্তানি বন্ধ করেছে ভারত। শুধু তাই নয় তীব্র জল সংকটে যাতে পাকিস্তান ভোগে সেজন্যে চরম ব্যবস্থা নেয় ভারত। যে তিনটি নদী ভারত থেকে পাকিস্তানের দিকে বয়ে চলে। ওই তিনটি নদীর জল কার্যত আটকে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এবার পাকিস্থানকে আরও চাপে ফেলাতে প্রতিবেশী দেশকে ফসল পাঠাতে অনিচ্ছুক চাষীরা৷ ব্যবসায়ে প্রভাব পড়বে জেনেও দেশের স্বার্থে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে মধ্যপ্রদেশের টোমাটো চাষীরা৷

মধ্যপ্রদেশের ঝাবুয়া জেলা টোমাটো চাষের জন্য পরিচিত৷ সেই জেলার পাঁচ হাজার চাষী সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা আর পাকিস্তানে টোমাটো রফতানি করবে না৷ পুলওয়ামার ঘটনার প্রতিবাদে এই সিদ্ধান্ত বলে জানা গিয়েছে৷ সংবাদ মাধ্যমকে এক টমেটো চাষী জানিয়েছেন, ‘‘আমরা টোমাটো চাষ করি৷ পাকিস্তানেও টোমাটো রফতানি করি৷ তারা আমাদের পাঠানো সবজি খায় আর আমাদের দেশের সেনাদের খুন করে৷ পাকিস্তান ধ্বংস হোক সেটাই এখন চাই৷’’

টোমাটো ট্রেড অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অশোক কৌশিক জানিয়েছেন, ভারত থেকে ৭৫-১০০ ট্রাক ভরতি টোমাটো যায় পাকিস্তানে৷ টোমাটো রফতানি করে মোটা টাকা ঘরে আসে ভারতের৷ অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, দেশে এক কিলো টোমাটোর দাম ৩০-৫০ টাকার মধ্যে ঘোরাফেরা করে৷ কিন্তু টোমাটোর দাম পাকিস্তানে আকাশছোঁয়া৷ লাহোরে এককিলো টোমাটোর দাম একশো টাকার উপর৷ ২৫কেজি টোমাটো থেকে ১২০০ থেকে ১৫০০ টাকা পাওয়া যায়৷ কিন্তু ব্যবসার পরোয়া না করে পাকিস্তানকে বয়কট করাই তাদের প্রধান উদ্দেশ্য৷ চাষীদের দেশপ্রেমকে কুর্নিশ জানিয়েছেন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথ৷ তিনি বলেন, ‘‘ঝাবুয়ার চাষীদের স্যালুট জানাচ্ছি৷’’