Be Well

রোগ উপশমে পুদিনা পাতা কত টা উপকারি যেনে নিন

প্রাচীন কাল থেকেই পুদিনা পাতা ভেজষ ওষুধ হিসাবে ব্যবহৃত হয়। আয়ুর্বেদ শাস্ত্রমতে এই পাতা বহু রোগ সারানোর কাজে লাগে।ছোট গুল্ম জাতীয় এই গাছের পাতা ডিম্বাকার, পাতার কিনারা খাঁজকাটা ও সুগন্ধীযুক্ত হয়।বিশ্বের অনেক দেশেই পুদিনার গাছ জন্মে। কিন্তু আমরা অনেকেই এর গুনাগুন সম্পর্কে কিছু জানি না। বিশ্বের অনেক দেশেই পুদিনার গাছ জন্মে।এর বৈজ্ঞানিক নাম ‘মেন্থা স্পিকাটা’। পুদিনা একটি সাধারণ আগাছা ধরনের গাছ। কাণ্ড ও পাতা বেশ নরম। পাতার রঙ সবুজ , কাণ্ডের রঙ বেগুনি। পাতা কিছুটা রোমশ ও মিন্টের তীব্র গন্ধযুক্ত । পুদিনা পাতার মূল, পাতা, কান্ড সহ সমগ্র গাছই ওষুধীগুনে পরিপূর্ণ। এর পাতা সুগন্ধি হিসাবে রান্নায় ব্যবহার করা হয়।গরম কালে পুদিনা পাতার সরবত খাওয়ারও প্রচলন আছে।এক প্রকারের গুল্মজাতীয় উদ্ভিদ।

পুদিনা পাতার উপকারিতাঃ

১) পুদিনা পাতার চা খুবই সুস্বাদু শরীরের ব্যাথা দূর করতেও খুবই উপকারি।

২) শরীর ঠান্ডা রাখতেও পুদিনার বিশেষ ভুমিকা আছে । স্নানের কিছুক্ষণ আগে জলের মধ্যে কিছু পুদিনা পাতা ফেলে রাখুন। সেই জলে স্নান করলে শরীর ও মন সতেজ থাকে। এ ছাড়া কয়েক ফোঁটা পুদিনার তেল জলের মধ্যে মিশিয়েও স্নান করতে পারেন।

৩) পুদিনার শেকড়ের রস উকুননাশক হিসেবে খুবই কার্যকরী, এমনকি পাতাও। পুদিনার পাতা বা শেকড়ের রস চুলের গোড়ায় লাগান। এরপর একটি পাতলা কাপড় মাথায় পেঁচিয়ে রাখুন। এক ঘণ্টা পর চুল শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত দুই বার এটি করুন। এক মাসের মধ্য চুল হবে উকুনমুক্ত।

৪) মেয়েদের অনিয়মিত পিরিয়ডের যন্ত্রণা থেকে সেরে ওঠার জন্য পুদিনা পাতা বেশ উপকারী।

৫) উচ্চ রক্তচাপ কমাতে পুদিনা পাতার রস সাহায্য করে। নিয়মিত পুদিনা পাতার রস খেলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনে থাকে।

৬) পুদিনার তাজা পাতা পিষে মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষণ পর যদি তা ধুয়ে ফেলা যায়, তা হলে মুখের তৈলাক্ত ভাব কাটাতে সহায়তা করে।

৭) গোলাপ, পুদিনা, আমলা, বাঁধাকপি ও শশার নির্যাস একসাথে মিশিয়ে টোনার তৈরি করে মুখে লাগালে তা ত্বককে মসৃণ করে তোলে।তেলাক্ত ভাব দূর হয়ে যায়। ব্রণ ওঠাও বন্ধ হয়।

৮) পুদিনা পাতার রস শ্বাস-প্রশ্বাসের নালী খুলে দেয়ার কাজে সহায়তা করে। ফলে যারা অ্যাজমা এবং কাশির সমস্যায় পড়েন তাদের সমস্যা তাৎক্ষণিক উপশমে পুদিনা পাতা বেশ কার্যকরী। খুব বেশি নিঃশ্বাসের এবং কাশির সমস্যায় পড়লে পুদিনা পাতা গরম জলে ফুটিয়ে সেই জলের ভাপ নিন।

৯) ব্রণ দূর করতে বা কমাতে তাজা পুদিনাপাতা বেটে ত্বকে লাগান। দশ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। ব্রণের দাগ দূর করতে প্রতিদিন রাতে পুদিনা পাতার রস আক্রান্ত স্থানে লাগান। সম্ভব হলে সারারাত রাখুন। নতুন কমপক্ষে ২/৩ ঘণ্টা। তারপর ধুয়ে ফেলুন। মাস খানেকের মাঝেই দাগ দূর হবে।

১০) রোদে পোড়া ত্বকের জ্বালাপোড়া কমাতে পুদিনা পাতার রস ও অ্যালোভেরার রস একসাথে মিশিয়ে ত্বকে লাগান। পনেরো মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।

১১) পুদিনা পাতা ক্যান্সার প্রতিরোধের ক্ষমতা রাখে। পুদিনা পাতার পেরিলেল অ্যালকোহল যা ফাইটোনিউরিয়েন্টসের একটি উপাদান দেহে ক্যান্সারের কোষ বৃদ্ধিতে বাঁধা প্রদান করে।

হাকিমি ও ইউনানি মতে পুদিনা পাতার উপকারঃ

১) পুদিনা পাতা মেয়েদের রক্তশূন্যতা পূরণ করে।
২) মায়ের বুকে দুধ বাড়ে।
৩) পুদিনাপাতার সালাদ খেলে পেটে গ্যাস হয় না। হজম হয়।
৪) যাদের বুক ধড়ফড় করে তারা পুদিনাপাতা খেলে উপকার হবে
৫) মাইগ্রেন বা আধকপালে মাথা ধরায় পুদিনাপাতা বেটে মাথায় লাগালে মাথাব্যথা ভালো হয়।
৬) হঠাৎ সানস্ট্রোক করলে পুদিনার শরবত খেলে উপকার পাবেন।
৭) পাতলা পায়খানা হলে পুদিনাপাতা বেশ উপকারী।
৮) যারা প্রস্রাব সমস্যায় ভুগছেন তারা এক গ্লাস জলে কয়েক ফোঁটা পুদিনাপাতার রস, সামান্য লবণ ও অল্প চিনি দিয়ে শরবত খান প্রস্রাব পরিষ্কার হবে।
৯) যাদের হজমশক্তি কম তারা পুদিনার শরবত ও চাটনি খেলে উপকার পাবেন।
১০) পুদিনা পাতা খেলে শরীরে তাপ বাড়ে। শরীরের দূষিত পদার্থ মলের সাহায্যে বেরিয়ে যায়। পাকস্থলি ও বুকের ও কিডনির যাবতীয় ময়লা দূর হয়।

আমাদের খবর টেলিগ্রামে পেতে ক্লিক করুন নীচের লিঙ্কে:  http://t.me/khaboria24
হোয়াটস্যাপে আমাদের সাথে যুক্ত হতে এই লিংকে ক্লিক করুন:  http://bit.ly/2DpZN6l

ফেসবুকে আমাদের সাথে যুক্ত হতে এই লিংকে ক্লিক করে লাইক করুন: https://www.facebook.com/khaboria24/