বিজেপি কর্মীরা বাইরে ছিল, তাহলে মূর্তি ভাঙল কারা? প্রশ্ন অমিতের

ওয়েব ডেস্ক, ১৫ মেঃ মঙ্গলবার বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের রোড শো-কে কেন্দ্র করে টিএমসিপি বনাম বিজেপি সংঘর্ষে উতপ্ত হয় হয় কলকাতা৷ সংঘর্ষে বিদ্যাসাগর কলেজে বিদ্যাসাগরের একটি মূর্তি ভেঙে ফেলার অভিযোগ ওঠে৷ সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা যায় অমিত শা-হর রোড শো থেকে কিছু কর্ণী সমর্থক বিদ্যাসাগরের মূর্তি বাইরে ফেলে ভাঙছে৷ যদিও কে বা কারা ওই মূর্তি কলেজের ভেতর থেকে বাইরে নিয়ে এল তা দেখা যায়নি ভিডিওটিতে৷ তবে তৃনমূলের অভিযোগ বিজেপির কর্মী সমর্থকরা বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে।

Top News

এরপরই বুধবার দিল্লিতে বিজেপি সদর দফতরে সাংবাদিক সম্মেলন করেন অমিত শাহ৷ তিনি বলেন, “ঘটনার সময় কলেজের গেট বন্ধ ছিল। আপনারা ছবিতে দেখতেও পাচ্ছেন গেট বন্ধ ও অক্ষত ছিল। বিজেপির কর্মী সমর্থকরা বাইরে ছিলেন। আমরা সবাই বাইরে ছিলাম। মাঝে পুলিশ ছিল। তাহলে কলেজের ভিতরে কারা মূর্তি ভাঙল?” তিনি অভিযোগ করেন, “তৃণমূল ভয় পেয়েছে। তৃণমূলের গুণ্ডারাই সমবেদনা আদায়ে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙে মিথ্যা নাটক করছে। ছ’দফার নির্বাচনে ওরা নিজেদের হার বুঝে গিয়েছে। ভোটব্যাঙ্কের জন্যই এসব করছে তৃণমূল”।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার রাতে বিদ্যাসাগর কলেজ এবং কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে সংঘর্ষের ঘটনাস্থলে যান মুখ্যমন্ত্রী৷ তিনি ওই ঘটনায় বিজেপির দিকে অভিযোগ করে বলেন, ‘‘বিহার, রাজস্থান থেকে গুণ্ডা এনেছে বিজেপি৷ তাদেরকে দিয়েই এই দাঙ্গা করিয়েছে বিজেপি৷ এই ধরণের ঘটনার জন্য আমরা লজ্জিত৷ ভোটে হারবে জেনেই বিজেপি এইসব করছে”। মঙ্গলবার সন্ধ্যার ওই ঘটনা নিয়ে উচ্চ-পর্যায়ের তদন্ত হবে বলেও জানিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী৷