বাড়ির অমতে বিয়ে, মায়ের হাতে খুন মেয়ে

ওয়েব ডেস্ক,‌ ১৫ মেঃ পারিবারিক বিবাদ এমন জায়গায় পৌঁছেছিল যে শেষ পর্যন্ত মায়ের হাতেই প্রাণ দিতে হল মেয়েকে। মহারাষ্ট্রের পুনে জেলায় এমনই ঘটনা ঘটেছে মঙ্গলবার। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত সঞ্জীবনী বোভাতে (‌৩৪)‌ ভারী পাথর দিয়ে মেয়ে রুতুজার মাথায় আঘাত করে। বারামতী শহরের প্রগতীনগরের এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

Top News

জানা গেছে গতবছর রুতুজা (‌১৯) নিম্নবর্ণের এক যুবককে পরিবারের বিরুদ্ধে গিয়ে বিয়ে করেছিল। যুবকটির পারিবারিক অবস্থাও ভাল ছিল না। কিন্তু স্বামীর সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় রুতুজা তাঁর মা-বাবার কাছে ফিরে আসে। রুতুজার মা সমস্যা মিটানোর চেষ্টা করেও সফল হননি। কারণ রুতুজাকে ঘরে নিয়ে যেতে রাজি ছিল না তাঁর স্বামী। এরপরই রুতুজা স্বামীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা করে। পুলিশ গ্রেপ্তারও করেছিল তাঁর স্বামীকে। কিন্তু রুতুজাই পরে মামলা তুলে নেয়। এমনকি স্বামীর সঙ্গে সংসার করার ইচ্ছাপ্রকাশ করে।

এরপর রুতুজার মা-বাবা একাধিকবার তাঁদের জামাইকে অনুরোধ করলেও স্ত্রীকে সে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যায়নি। এরপরই মায়ের সঙ্গে তীব্র বিবাদ শুরু হয় রুতুজার। তাঁর অভিযোগ ছিল, মা-বাবাই স্বামীর কাছে যেতে দিচ্ছে না তাঁকে। মঙ্গলবার বিবাদ চরমে ওঠে। মাথা ঠিক রাখতে না পেরে সঞ্জীবনী ভারী পাথর দিয়ে মেয়ের মাথায় আঘাত করে। ঘটনাস্থলেই মারা যায় রুতুজা। মেয়েকে খুনের অভিযোগে মাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।