মা মৌরিন বঢরাকে নিয়ে ফের ইডির দপ্তরে হাজিরা রবার্ট বঢরার

ওয়েব ডেস্ক, ১১ ফেব্রুয়ারিঃ বিকানের জমি কেলঙ্কারি মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য জয়পুরে ফের ইডির দপ্তরে হাজিরা দিলেন রবার্ট বঢরা ও তাঁর মা মৌরিন বঢরা। গত এক সপ্তাহে ওই নিয়ে চারবার ইডি দপ্তরে হাজিরা দিলেন ব্যবসায়ী রবার্ট বঢরা।

Top News

জানা গিয়েছে, গত মাসেই বিকানেরে বেআইনি জমি বন্টনে অভিযুক্ত রবার্ট বঢরাকে ইডি দপ্তরে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেন রাজস্থান হাইকোর্ট। স্কাইলাইট হসপিটালিটি সংস্থার কর্ণধারকে তদন্তে সহযোগিতা করার নির্দেশ দেয় আদালত। রবার্ট ও তাঁর মা মৌরিন ওই সংস্থার ডিরেক্টর। ইডির দাবি, ‘প্রিভেনশন অব মানি লন্ডারিং অ্যাক্টে’ রবার্টকে তিনবার সমন পাঠানো হলেও আদালত রবার্টের গ্রেফতারির নির্দেশ স্থগিত রেখেছে। অন্য একটি মামলায় ইডি রবার্ট বঢরাকে গত সপ্তাহে তিনবার ম্যারাথন জেরা চালায়।  লন্ডনে বেনামি সম্পত্তি, অস্ত্র ব্যবসায়ী সঞ্জয় ভাণ্ডারির সঙ্গে যোগসাজশ এবং কিছু ইমেলের উত্তর খুঁজতে রবার্ট বঢরাকে তলব করা হয়।  তাঁর বিরুদ্ধে লন্ডনের বারো ব্রায়ানস্টোন স্কোয়ারের উনিশ লক্ষ পাউন্ডের বেনামে সম্পত্তি থাকার অভিযোগ রয়েছে। ইডির দাবি দুবাইয়ের মাধ্যমে ওই সম্পত্তি বঢরার নামে কেনা হয়।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার জিজ্ঞাসাবাদের সময় রবার্টকে কিছু ইমেইল সম্পর্কিত প্রশ্ন করে ইডি। অস্ত্র ব্যবসায়ী সঞ্জয় ভাণ্ডারির ঘনিষ্ঠ লন্ডনের বাসিন্দা সুমিত চাধার সঙ্গে বঢরার সম্পর্কের কথা জানতে চাওয়া হয়। এর পাশাপাশি ইমেলে মনোজ নামে এক ব্যক্তির নামও উঠে আসে। বেনামে সম্পত্তি কেনাবেচায় নাম রয়েছে স্কাইলাইট হসপিটালিটি সংস্থার প্রাক্তন কর্মচারি ওই মনোজের। রবার্ট বঢরার সঙ্গে তাঁর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল ।

ইডি দপ্তরে হাজিরা দিতে রবার্ট যখন জয়পুরে যান তাঁর স্ত্রী প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢরা রোড-শোর জন্য উত্তরপ্রদেশে ছিলেন। জানা গিয়েছে, যোগীর রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় জনসভা, দলীয় কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করবেন প্রিয়ঙ্কা। তৃণমূল স্তরে কংগ্রেস কর্মীদের উজ্জ্বীবিত করতে অনুঘটকের কাজ করছেন তিনিই। রবার্ট বঢরার জেরা নিয়ে প্রিয়ঙ্কা দাবি করেন, “প্রতিহিংসার রাজনীতি খেলছে বিজেপি। আমি, আমার স্বামী এবং পরিবারের পাশে সবসময় রয়েছি।”