প্রধানমন্ত্রীর হেলিকপ্টার থেকে নামলো কালো বাক্স! তদন্তের দাবি কংগ্রেসের

ওয়েব ডেস্ক, ১৫ এপ্রিলঃ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর হেলিকপ্টারে বহন করা হচ্ছিল সন্দেহজনক কালো ট্রাঙ্ক। ওই বাক্স দু’দিক থেকে ধরে রয়েছেন দু’জন৷ তাঁরা ওই বাক্সটি হাতে নিয়ে খুব জোরে দৌড়ে এগিয়ে চলেছেন৷ লক্ষ্য সামনে দাঁড়িয়ে থাকা একটি সাদা গাড়ি৷ কয়েক মিনিটের মধ্যেই ওই গাড়ির সামনে পৌঁছে যান দু’জন৷ বাক্স রেখে দেওয়া হয় গাড়ির ভিতর৷ তারপর তা দ্রুত গতিতে বেরিয়ে যায়৷ কয়েক মিনিটের এই সিসিটিভি ফুটেজ নিয়েই মাথাচাড়া দিয়েছে বিতর্ক৷

Top News

কংগ্রেস মুখপত্র আনন্দ শর্মার দাবি, নির্বাচন কমিশনের তদন্ত করে দেখা উচিত ট্রাঙ্কে কী ছিল। প্রধানমন্ত্রী কপ্টারকে একর্ট করছিল আরও তিনটি চপার। নামার পরে, একটি কালো ট্রাঙ্ক বের করা হয় এবং তাড়াতাড়ি একটি সাদা গাড়িতে তোলা হয়। যা কিনা এসপিজির গাড়ি ছিল না বলে অভিযোগ করেছে কংগ্রেস। আনন্দ শর্মা জানিয়েছেন, কর্নাটক কংগ্রেস ইতিমধ্যেই বিষয়টি নিয়ে কমিশনের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছে। শর্মার সন্দেহ ট্রাঙ্কে টাকা থাকতে পারে। যদি টাকাই না থাকে, তাহলে তদন্ত চলতে দেওয়া হোক, বলেছেন তিনি।

রাজ্য কংগ্রেস সভাপতি দীনেশ গুন্ডুরা ওই সিসিটিভি ফুটেজটি নিয়ে টুইট করেন৷ তাঁর অভিযোগ, ‘‘একটি কালো বাক্স চিত্রদুর্গে প্রধানমন্ত্রীর হেলিকপ্টার থেকে নেমেছে। তারপরেই সেটিকে একটি সাদা গাড়িতে চাপিয়ে পাচার করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের খতিয়ে দেখা উচিত, এই বাক্সে কী ছিল? গাড়িটাই বা কার?’’ এরপর রবিবার দিল্লিতে এআইসিসি দপ্তরে এই বাক্স কাণ্ড নিয়ে সাংবাদিক বৈঠক করে কংগ্রেস। সকলের সামনে তুলে ধরা হয়েছে মিনিটখানেকের সিসিটিভি ফুটেজ৷