চাকরি দেওয়ার নাম করে আটকে থাকা টাকা ফেরত আনতে গিয়ে ধর্ষিতা তরুণী

ওয়েব ডেস্ক, ১৫ এপ্রিলঃ চাকরি দেওয়ার নাম করে আটকে থাকা টাকা ফেরত আনতে গিয়ে ধর্ষন হলেন এক তরুণী। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে লখনউয়ের বিভূতি খাদে। বর্তমানে ওই তরুণী হাসপাতালে চিকিৎসাধিন রয়েছেন।

Top News

জানা গিয়েছে, ওই তরুণী লখনউয়ের মলিহাবাদের বাসিন্দা । এক বছর আগে চাকরি দেওয়ার নাম করে ওই তরুণীর কাছ থেকে ৫০,০০০ টাকা নেয় বাবলু ও কাশীরাম নামে দুই ব্যক্তি। তাঁরা দুজন তরুণীর পরিচিত ছিল। টাকা নেওয়ার পর থেকেই বিভিন্নভাবে ওই তরুণীকে বাবলু ও কাশীরাম ঘোরাতে থাকে।  কিছুদিন পর তরুণী বুঝতে পারে তাঁর চাকরি হবে না। পরে চাকরির আশা ত্যাগ করে বাবলু ও কাশীরামের কাছ থেকে টাকা ফেরত চান তিনি। তখন টাকা ফেরত দেওয়ার নাম করে তাকে বিভূতি খাদে ওই দুই প্রতারক ডেকে পাঠায়। অভিযোগ সেখানে তরুণী গেলে তাকে ধর্ষণ করে তাঁরা।

তরুণী জানিয়েছে, বাবলুর কথা মত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিভূতি খাদে যেতেই, তাকে চলতি গাড়িতে টেনে তুলে লখনউয়ের শহিদ পাথে চলে যায় তারা। চার জন মিলে ১ ঘণ্টা ধরে তাকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পরে তাকে ফেলে রেখে যায় তেলিবাগ রোডে। সেখান থেকে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। ওই তরুণী বাবলু, কাশীরাম ছাড়াও  হরিশ এবং জে পি গুপ্ত নামে আরও দুই অভিযুক্তের নামেও অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্ত চার জনের নামেই থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।