তোর্সায় স্নান করতে গিয়ে পাকে পরে মৃত্যু এক বৃদ্ধের, চাঞ্চল্য

কোচবিহার, ২ সেপ্টেম্বর: তোর্সায় স্নান করতে গিয়ে পাকে পড়ে তলিয়ে গেল এক বৃদ্ধ। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার দুপুরে কোচবিহার শহর সংলগ্ন ঘুঘুমারি বারুইপাড়া এলাকায়। স্থানীয় কয়েকজন যুবক ওই বৃদ্ধকে নদীতে ডুবতে দেখে চিৎকার চেঁচামেচি করে। ওই বৃদ্ধ জলে ভেসে কিছুটা দুরে গিয়ে আটকে থাকে। পর খবর দেওয়া হয় কোচবিহার কোতোয়ালি থানার পুলিশকে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে এসে ওই বৃদ্ধর মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Top News

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, মৃত ওই ব্যক্তির নাম কানু রাজভার (৬০)। তাঁর বাড়ি ঘুঘুমারি সংলগ্ন বারুইপাড়া এলাকায়। জানা গেছে, ওই বৃদ্ধ প্রতিদিন তোর্সায় স্নান করতে যায়। রবিবার দুপুরে স্নান করতে গিয়ে ওই বৃদ্ধকে নদীর ডুবতে দেখে স্থানীয়রা। পরে তারা চিৎকার চেঁচামেচি করতে থাকে। সেই সময় স্থানীয় কয়েকজন যুবক ওই বৃদ্ধকে বাঁচানোর জন্য নদীতে ঝাঁপ দেয়। অনেক চেষ্টা করেও তারা ওই বৃদ্ধকে তুলতে পারেনি। কিন্তু ওই বৃদ্ধ জলে পাকে পড়ে ভেসে গিয়ে তোর্সা নদীর মাঝে অথৈ জলে একটি জায়গায় খুটেতে আটকে পরে। কিন্তু তাতে অনেকটা দেরি হয়ে যায়। স্থানীয় কয়েকজন যুবক তারা তাদের সাহসিকতার পরিচয় দিয়ে ওই বৃদ্ধকে জল থেকে উদ্ধার করে উপরে নিয়ে আসেন। ঘটনাস্থলেই ওই বৃদ্ধের মৃত্যু হয়। পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কোচবিহার এমজেএন হাসপাতালে পাঠায়।

স্থানীয় বাসিন্দা রমেশ পাল জানান, “কানু রাজভার প্রতিদিনের মত আজকেও নদীতে স্নান করতে আসেন। গতকাল থেকে তোর্সা নদীতে জল অনেকটা বেড়ে যাওয়ায় কানু হয়তো বুঝে উঠতে পারেনি। আজ যখন স্নান করতে নামে কানু জলের পাকে পড়ে যায়। বৃদ্ধ মানুষ পাক সামলাতে না পেরে কানু জলে ডুবে যায়। আর তাঁর কিছুক্ষন পরে কানুর দেহ জলে ভেসে উঠে। স্থানীয় কয়েকজন যুবক কানুকে উদ্ধার করে। উপরে তুলে দেখেন তাঁর মৃত্যু হয়েছে।” খবর পেয়ে কোতোয়ালি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।