ছাপ্পা দেওয়া নির্দেশ দিচ্ছেন তৃনমূল নেতা, ভাইরাল অডিও নিয়ে  তোলপাড় কোচবিহার

কোচবিহার, ১০ এপ্রিলঃ সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকছে না। সেই সুযোগে দলীয় কর্মীদের ছাপ্পা দেওয়ার নির্দেশ দিচ্ছেন কোচবিহারের এক তৃণমূল নেতা। এমন একটি অডিও ভাইরাল হওয়ায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ওই অডিও নিয়ে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হচ্ছে বিজেপি নেতৃত্ব। ৪ মিনিট ১০ সেকেন্ডের ওই অডিওতে মূল নির্দেশে বলা হয়েছে, ১০০ টি বুথের মধ্যে ৪০ টি বুথে মিলিটারি ফোর্স আসেব। বাকি বুথে ঢুকে ছাপ্পা ভোট দিয়ে দেবেন। ভোট যেভাবেই হোক তৃণমূলে ফেলতে হবে। এটাই আমাদের লক্ষ্য।

Top News

কোন ঘরোয়া সভায় কর্মীদের উদ্দেশ্যে কোচবিহার ১ নম্বর ব্লক তৃণমূল সভাপতি খোকন মিঞা নাকি বক্তব্য রাখছিলেন। সেই সময় ওই অডিও রেকর্ডিং করে ভাইরাল করে দেওয়া হয়েছে বলে অনেকেই মনে করছেন (তবে ওই অডিওর সত্যতা খবরিয়া২৪ যাচাই করে নি) কোচবিহারে বিজেপি নেতা উৎপল কুমার দেব বলেন, “ওই অডিও ক্লিপে পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে খোকন মিয়া কোন একটা ঘরোয়া সভা থেকে এমন নির্দেশ দিচ্ছেন। কিন্তু এসব করে এবার ওরা পার পাবে না। মানুষ রুখে দেবে। তবু বিষয়টি আমরা নির্বাচন কমিশনের নজরে আনবো।” অন্যদিকে তৃণমূল কংগ্রেসের কোচবিহার ১ নম্বর ব্লক সভাপতি খোকন মিয়াঁ বলেন, “পুরো বিষয়টি সাজানো। আমি কোথাও এমন কথা বলি নি। যদিও এমন কোন অডিও ছড়িয়ে থাকে, তাহলে সেটা বিজেপির চক্রান্ত। হেরে গিয়েছে বুঝতে এসব চক্রান্ত করে বেরাচ্ছে।”

ওই অডিওতে বলা হয়েছে, এই কাজটা কিন্তু ১০০ শতাংশ করতে হবে। অন্য কোনও দলকে একটাও ভোট দেওয়া যাবে না। যদি কেউ মনে করে কিছু ভোট হাত চিহ্নে দেব, কিছু ভোট বিজেপিকে দেব। আর কিছু ভোট তৃণমূলে দেব। এসব করলে কিন্তু ভোটের পর চিহ্নিতকরণ করা হবে। ১০০ টি বুথের মধ্যে ৪০ টি বুথে আসবে প্যারা মিলিটারি। প্রত্যেকটা দলের লোক বুঝে গেছে যে প্রত্যেকটা বুথে কেন প্যারা মিলিটারি নেই। আমার হোদলপুরে একটাও প্যারা মিলিটারি থাকবে না। বাকি জায়গায় আমার কন্ট্রোল থাকবে। অফিসার যারা আসবেন, তাঁরা কিন্তু আমাদের কর্মচারী। কোথায় কোথায় কী করতে হবে তা চিহ্নিত করার কাজ শুরু করে দিয়েছি। ওই বুথগুলির জন্য আমরা লোকজন তৈরি করে রেখেছি। প্রিজ়াইডিং অফিসার যখন আসবেন, ৫-৬ জন তাঁকে সেটিং করবে। বুথে ঢুকে ছাপ্পা ভোট দিয়ে দেবেন। ভোট যেভাবেই হোক তৃণমূলে পড়তে হবে। এটাই আমাদের লক্ষ্য।

বিজেপির অভিযোগ পাওয়ার পরে এই অডিও নিয়ে নির্বাচন কমিশন কোন ব্যবস্থা গ্রহন করে কিনা এখন সেটাই দেখার।