৪ বছর নিরুদ্দেশ থাকার সময় কি জেল খেটেছেন? নিশীথ সম্পর্কে খোঁজ নিচ্ছেন রবি

কাজল রায়, মাথাভাঙাঃ চার বছর কোথায় ছিলেন নিশীথ প্রামাণিক? মাথাভাঙায় ভোটের প্রচারে গিয়ে প্রশ্ন তুললেন তৃণমূল কংগ্রেসের কোচবিহার জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। শুধু তাই নয়, প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক হয়েও কি করে হলফনামায় আয়ের উৎসের জায়গায় ব্যবসা দেখালেন? সেটাও জানতে চেয়েছেন রবি বাবু।

Top News

তিনি জানান, আমরা বিজেপি প্রার্থীর হলফনামায় জানতে পেরেছি তার বিরুদ্ধে ১১ টি মামলা রয়েছে। পুলিশের খাতায় সে পলাতক। নিজেকে প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক বলে জানিয়েছেন। কিন্তু আয়ের উৎসের জায়গায় লিখেছেন ব্যবসা করার কথা। কিন্তু সরকারি চাকুরীজীবীর অন্য কোন পেশার সাথে যুক্ত থাকা বেআইনি।

রবি বাবুর দাবি, ২০১৪ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত তিনি জেলায় ছিলেন না। ওই সময় অন্য কোন রাজ্যে সাজা প্রাপ্ত হয়ে জেল খেটেছেন কিনা? কারণ কোন সাজাপ্রাপ্ত ব্যাক্তি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেন না। তাই এসব খোঁজ নিয়ে দেখা হচ্ছে বলে ওই তৃণমূল নেতা দাবি করেছেন।

তবে এনিয়ে কোচবিহারের বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিককে ফোনে ধরার চেষ্টা করেও পাওয়া যায় নি। তবে এর আগেই বিজেপি নেতারা জানিয়েছিলেন, তৃণমূলে থাকার সময় রবীন্দ্রনাথ ঘোষের বিরোধিতা করায় নিশীথ প্রামাণিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে।

শুধু নিশীথ প্রামাণিককেই নয়, এদিন মাথাভাঙায় গিয়ে নাম না করে মোদী ও অমিত শাহর উত্তরবঙ্গের সভা নিয়েও কটাক্ষ করেন রবীন্দ্রনাথ বাবু। তাঁদের সভায় কোন প্রভাব পড়বে না বলে জানিয়ে দেন তিনি। পাশাপাশি ৩ এপ্রিল দিনহাটা ও তুফানগঞ্জে দলীয় প্রার্থীর হয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও ৪ এপ্রিল মাথাভাঙায় তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রচারে আসবেন বলে জানান রবীন্দ্রনাথ বাবু। তিনি বলেন, “৫ এপ্রিল কোচবিহার লাগোয়া অসমের ধুবরিতেও সভা করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যদি দিদিকে দিয়ে কোচবিহারে আরও একটা সভা করানো করানো যায়, সেটাও চেষ্টা করা হচ্ছে।”

এদিন মাথাভাঙা যাওয়ার আগে কোচবিহারে সুকান্ত মঞ্চে পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির একটি নির্বাচনী সভায় বক্তব্য রাখছেন কোচবিহার তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। এই কর্মী সভায় উপস্থিত আছেন পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির রাজ্য সভাপতি অশোক রুদ্র। কোচবিহার জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের মহিলা নেত্রী কল্যানী পোদ্দার। কোচবিহার জেলা তৃণমূলের প্রার্থী পরেশ চন্দ্র অধিকারী।