মাদারের সাথে ঝামেলার আশঙ্কা, দিনহাটায় মিছিল করা থেকে পিছিয়ে আসতে পারে যুব

দিনহাটা, ১০ নভেম্বরঃ মিছিলের ডাক দিয়েও শেষ পর্যন্ত পিছিয়ে আসতে পারে তৃণমূল যুব কংগ্রেস। আগামী কাল দিনহাটায় পৃথক পৃথক ভাবে মিছিলের ডাক দেয় তৃণমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠী মাদার ও যুব। আলাদা আলাদা সময়ে হলেও একই দিনে ওই দুই মিছিল নিয়ে উত্তেজনার সৃষ্টি হতে পারে বলে আশঙ্কা তৈরি হয়। জেলা পুলিশের উচ্চ পদস্থ কর্তারা এনিয়ে দুই গোষ্ঠীর নেতৃত্বের সাথে যোগাযোগ করে বলে বিশেষ সুত্রের খবর। প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে, শেষ পর্যন্ত যুব গোষ্ঠী মিছিল করা থেকে পিছিয়ে আসতে পারে। তবে মাদার গোষ্ঠীর মিছিল হবে বলে জানা গিয়েছে।

Top News

তৃণমূল কংগ্রেসের দিনহাটা ১ নম্বর ব্লক সভাপতি নূর আলম হোসেন বলেন, “লোকসভা নির্বাচন আসন্ন, তাই কর্মীদের চাঙ্গা করতে এই মিছিলের ডাক দেওয়া হয়েছে। আমাদের কর্মী আবু মিয়াঁর খুনিদের গ্রেপ্তার করার দাবি ওই মিছিল থেকে জানানো হবে। কিন্তু আচমকা জানতে পারি একই দিনে যুব পৃথক একটি মিছিল করতে চাইছে। ওরা কি করবে বলতে পারবো না। তবে আমাদের মিছিল হচ্ছে।” তৃণমূল যুব কংগ্রেসের দিনহাটা শহর ব্লক কমিটির সভাপতি অজয় রায় বলেন, “কালকের মিছিল হবে কিনা, তা নিয়ে এখনও সিধান্ত চুরান্ত হয় নি। রাতে বৈঠক করার পর সিধান্ত জানানো হবে।” দিনহাটার এসডিপিও উমেশ জি খান্ডোয়াল বলেন, “ আগামী কাল একটাই মিছিল হচ্ছে। সেটা তৃণমূল কংগ্রেসের। মিছিল যাতে শান্তিপূর্ণ ভাবে হয়, সেদিকে পুলিশ নজর রাখবে।”

পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে থেকেই দিনহাটায় তৃণমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠী মাদার ও যুব’র মধ্যে গোষ্ঠী লড়াই চলছে। দুই পক্ষের ওই লড়াইয়ে একাধিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। খোদ মুখ্যমন্ত্রী কোচবিহারে এসে ওই গণ্ডগোল মেটাতে পুলিশকে কড়া হাতে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। তারপরেও দুই পক্ষের মধ্যে গণ্ডগোল চলছেই। কিন্তু একই দিনে দুই পক্ষের মিছিলের ডাক দেওয়ায় সেই গণ্ডগোল দিনহাটা শহরে চলে আসতে পারে বলে আশঙ্কা তৈরি হয়। আর সেই কারনেই প্রশাসন দুই পক্ষের সাথে কথা বলে যুবকে মিছিল করা থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দেয় বলে জানা গিয়েছে।