পণের দাবিতে চার মাসের অন্তঃসত্ত্বাকে গলা টিপে খুনের অভিযোগ শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে

ওয়েব ডেস্ক ১০ জুন : ফের বাংলার বুকে মর্মান্তিক গৃহবধূ খুনের ঘটনা ঘটলো পুরুলিয়ায়। বার বার পনের জন্য চাপ সৃষ্টি করতে থাকলে সেই টাকা দিতে অস্বীকার করায় যুবতির গায়ে আগুন দিয়ে খুনের অভিযোগ উঠল শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে । এই ঘটনাটি ঘটেছে  পুরুলিয়ার আদ্রা এলাকার । মৃতের নাম মৌ চ্যাটার্জি বলে জানা গিয়েছে ।স্থানীয় প্রতিবেশীদের অভিযোগের ভিত্তিতে শ্বশুর ও শাশুড়িকে গ্রেফতার করেছে কাশীপুর থানার পুলিশ ।

Top News

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, যুবতির স্বামী মৃত্যুঞ্জয় চ্যাটার্জি ও দেওর চন্দন চ্যাটার্জি পলাতক । ২ বছর আগে মৌ- এর সঙ্গে বিয়ে হয় মৃত্যুঞ্জয় চ্যাটার্জির । মৌ 8 মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিল বলে জানিয়েছেন মৌ এর বাড়ির লোক । তার বাবা সুকুমার মিশ্র অভিযোগ করেন, “বিয়ের পর থেকেই পণের জন্য মৌ-এর উপর শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার শুরু করে শ্বশুরবাড়ির লোকজন ।তিনি আরও বলেন, শাশুড়ি নমিতা চ্যাটার্জি মৌ-কে প্রায়ই সন্তান প্রসবের পর ওকে মেরে ফেলার ভয় দেখাত ।

রবিবার রাতে মৌ-কে গলা টিপে মেরে ফেলার পর কেরোসিন তেল গায়ে ঢেলে দিয়ে আগুন দেয় বলে অভিযোগ । স্থানীয় বাসিন্দাদের অনুমান  শ্বশুর,শাশুড়ি, স্বামী ও দেওর মিলে খুন করে তাঁকে ।”পুলিশ তদন্তে নেমে শ্বশুর অশোক চ্যাটার্জি ও শাশুড়ি নমিতা চ্যাটার্জিকে গ্রেফতার করেছে ।পালাতক স্বামী ও দেওরের খোঁজে তল্লাশি অভিযান শুরু করেছে পুলিশ ।