কোচবিহারে গৃহবধূকে পুড়িয়ে খুন, দোষীদের শাস্তির দাবিতে পথ অবরোধ হাসপাতাল চৌপথিতে

কোচবিহার, ২৭ জুনঃ এক গৃহবধূকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ তুলে তার খুনিকে অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবি নিয়ে বৃহস্পতিবার কোচবিহার শহরের হাসপাতাল চৌপথিতে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় এসইউসিআই-এর মহিলা সংগঠন অল ইন্ডিয়া মহিলা সাংস্কৃতিক সংঘ।

Top News

শহরের গুরুত্বপূর্ণ পথ আটকে আন্দলন করায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে, কোচবিহার কোতয়ালি থানার পুলিশ এসে পথ অবরোধ তুলে যানজট স্বাভাবিক করে। প্রসঙ্গত, মাস দুয়েক আগে কোচবিহার শহরের ১৮ নং ওয়ার্ডের পাটাকুড়া এলাকায় ফরিদা বিবি নামে এক মহিলাকে গায়ে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ ওঠে শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। এর পর ওই গৃহবধুকে কোচবিহার সরকারি মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে গেলে ওখানেই ওই গৃহবধুর মৃত্যু হয়। এর পড়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হলেও অপরাধীদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

মহিলা সংগঠন অল ইন্ডিয়া মহিলা সাংস্কৃতিক সংঘ তরফ থেকেও এই নিয়ে বহু বার পুলিশ ও পুলিশ সুপারের কাছে ডেপুটেশন দিলেও কাজ হয়নি বলে দাবি করেন সংগঠন নেতৃত্ব।

এই ঘটনার পরিপেক্ষিতে, খুনিকে অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবি তুলে পথ অবরোধ করে অল ইন্ডিয়া মহিলা সাংস্কৃতিক সংঘের কোচবিহার জেলা সম্পাদিকা নমিতা বর্মণ বলেন, “গত ১১ ই মে কোচবিহারের পাটাকুড়া এলাকার ফরিদা বিবিকে শ্বশুরবাড়ির লোক ও স্বামী মিলে হাত পা বেঁধে চেয়ারে বসিয়ে গাঁয়ে আগুন লাগিয়ে দেয়। এভাবেই মর্মান্তিক মৃত্যু হয় তাঁর। এই ঘটনার দু’মাস পেড়িয়ে গেলেও মূল অভিযুক্ত একরামুল ও রহিম চৌধুরীকে প্রেপ্তার করেনি পুলিশ। আমরা বহুবার জানিয়েও কাজ না হওয়ায় বাধ্য হয়ে দোষীদের শাস্তি চেয়ে আজ আমাদের এই পথ অবরোধ। কোচবিহার কোতোয়ালি থানার টাউন বাবু এসে সবার সামনে কথা দেন যে পুলিশ এক সপ্তাহের মধ্যে ওই দুই মূল অভিজুক্তকে গ্রেপ্তার করবেন। তাঁর এই আশ্বাসে আমরা আজ পথ অবরোধ তুলে নিলাম। কিন্তু এক সপ্তাহের মধ্যে পুলিশ দোষীদের ধরতে ব্যর্থ হলে আমরা বৃহৎ আন্দোলনে নামব। ”