মাথাভাঙ্গায় উত্তেজনা চরমে, চলল গুলিও শহর জুড়ে পুলিশের টহলদারি

মাথাভাঙ্গা, ১৬ আগস্টঃ ক্রমশ উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে মাথাভাঙ্গা। বিজেপির রক্তদান কর্মসূচিতে তৃনমূলের হামলার অভিযোগে রনক্ষেত্রের চেহারা নেয় মাথাভাঙ্গা। সংঘর্ষের রেশ এসে পড়ে মাথাভাঙ্গা শহরে। স্থানীয় মাথাভাঙ্গা ঝংকার ক্লাবের সামনে ব্যাপক উত্তেজনা দেখা দেয়। ওই ঘটনায় জেরে গুলি চালানোর অভিযোগ ওঠে। এর পরে রনংদেহি পরিস্থিতি সৃষ্টি হয় গোটা শহর জুড়ে।

Top News

অভিযোগ উত্তেজিত বিজেপি কর্মীরা পথ অবরোধ করে এবং তৃনমূলের দুটি কার্যালয়েও ভাঙচুর চালায়। পরিস্থিতির জেরে থমথমে গোটা মাথাভাঙ্গা শহর। বন্ধ হয়ে যায় দোকান পাঠ, ছুটছুটি করে নিরাপদ স্থানে পৌঁছতে চায় সাধারন মানুষ। পরিস্থিতি সামাল দিতে মাথাভাঙ্গা থানার বিশাল বাহিনী ঘটনাস্থলে গিয়ে শহর টহলদারি শুরু করেছে। সংঘর্ষ চলাকালীন যে গুলি চলেছে তা পুলিশ করে নি বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, বিজেপির মজদুর সংগঠনের রক্তদান শিবির চলাকালীন হামলা চালানোর অভিযোগ উঠল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। আজ দুপুরে মাথাভাঙা শহরের শীতলখুচি রোডে ওই ঘটনা ঘটেছে। হামলাকারীরা আচমকা এসে এলোপাথাড়ি ঢিল ছুড়তে শুরু করে। বাইরে থাকা মোটর সাইকেল গুলোতে ভাঙচুর চালায়। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে রক্তদাতারা শয্যা থেকে উঠে রক্তের ব্যাগ টান দিয়ে খুলে পালাতে শুরু করে।

কিছুক্ষণের মধ্যে সেখানে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। হামলাকারীরা যাওয়ার পরে সেখানে পাল্টা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। খবর পেয়ে ছুটে আসে মাথাভাঙা থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। তারা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লাঠি চার্জ করে বলে অভিযোগ। এরপরেই গোটা মাথাভাঙা শহর জুড়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। আতঙ্কিত ব্যবসায়ীরা দোকান পাট বন্ধ করে দেয়। স্কুল গুলোতে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। শিক্ষকরা স্কুল গেট বন্ধ করে দিতে বাধ্য হন।