মাথাভাঙ্গার সভা থেকে দলে  শুদ্ধি করনের ইঙ্গিত দিলেন  তৃণমূল রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সী

মাথাভাঙা, ১০ জুলাইঃ ২১ জুলাই তৃণমূলের শহীদ সমাবেশকে সামনে রেখে জেলায় জেলায় প্রচার শুরু হয়েছে। এ লক্ষ্যেই কোচবিহার জেলা জুড়ে চলেছে সভা সমাবেশ। লোকসভা নির্বাচনে এ রাজ্যে যথেষ্ট খারাপ ফল করেছে তৃনমূল। এবার ঘুরে দাঁড়াতে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহন করছে তারা। শহীদ সমাবেশকে পাখির চোখ করেছে তৃণমূল। তারই প্রচার অভিযানে কোচবিহারে ৩ দিনের টানা কর্মসূচি নিয়ে এসেছেন প্রদেশ তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি সুব্রত বক্সী।

Top News

সোমবার দলের এই নেতা কোচবিহারের আসেন,সেই দিনই দিনহাটা শহরে একটি কর্মী সভা করেন। মঙ্গলবার তুফানগঞ্জের কমিউনিটি হল ও কোচবিহার শহরের সুকান্ত মঞ্চে দুটি পৃথক সভা করেন। বুধবার তার সভা ছিল মাথাভাঙ্গা শহরের নজরুল সদনে।

এই সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে সুব্রতবাবু দলের শুদ্ধি করনের কথা বলেন। তিনি বলেন, যে সব তৃণমূল কর্মীরা দলকে নষ্ট করার চেষ্টা করছে এবং যারা দলকে  নিয়ে মৌরুসি পাট্টার তৈরি করার চেষ্টা করছে তাদের বলি এসব করবেন না, কারন দল নষ্ট করার অধিকার তাদের নেই। দলের শেষ কথা বলবেন মমতা বন্ধোপাধ্যায়। কিন্তু অনেকেই নিজেকে তৃণমূলের সর্বেসর্বা ভেবে ভুল আচরণ করছেন কর্মীদের সাথে।

এদিন আত্ম সমালোচনার সুর শোনা গেল তার গলায়। এই সভাকে ঘিরে এদিন যাতে কোন গোলমাল না হয় তার জন্য জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রচুর পুলিশ মোতায়েন করা হয়। এমনকি প্রস্তুত রাখা হয় জল কামানও। ব্যাপক পুলিশ নিরাপত্তায় মাথাভাঙায় সভা করতে আসেন সুব্রত বক্সী।

উল্লেখ গতকাল জেলার তুফানগঞ্জে তাকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি কর্মীরা। এনিয়ে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। গত ২৪ ও ২৫ জুন কোচবিহার জেলায় এসে বিক্ষোভের মুখে পরেন তিনি। শীতলখুচি জঠামারি ও মাথাভাঙ্গার শিকারপুর এলাকায় এই বিক্ষোভ হয়। এবারে তাই চূড়ান্ত  সতর্কতা অবলম্বন করে পুলিশ প্রশাসন।