ধর্ষণের পর মহিলার যৌনাঙ্গে লোহার রড, নির্ভয়া কাণ্ডের ছায়া ধুপগুড়িতে

ধুপগুড়ি, ২১ অক্টোবরঃ মহিলাকে নদীর ধারে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের পর যৌনাঙ্গে লোহার রড ঢুকিয়ে দিল ধর্ষকরা। সারা রাত রক্তাক্ত অবস্থায় নদীর ধারে পড়েছিলেন ওই মহিলা। আজ সকালে রক্তাক্ত অবস্থায় ওই মহিলাকে নদীর ধারে পরে থাকতে দেখে স্থানীয়রা তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে জলপাইগুড়ি জেলার ধুপগুরিতে। ঘটনার খবর পেয়ে ধুপগুরিতে ছুটে এসেছেন জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সহ অন্যান্য পুলিশ আধিকারিকরা। ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্ত দুই যুবক।

Top News

জানা গিয়েছে, গতকাল রাতে দুই যুবক তাঁকে নদীর ধারে তুলে নিয়ে যায়। এরপর ওই মহিলাকে ধর্ষণের পর তাঁর যৌনাঙ্গে লোহার রড ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। আজ সকালে স্থানীয়রা ওই নির্যাতিতাকে উদ্ধার করে  হাসপাতালে ভর্তি করান। হাসপাতাল সুত্রের খবর, নির্যাতিতা মহিলার রক্তক্ষরণ বন্ধ না হওয়ায় তাঁকে ধুপগুরি হাসপাতাল থেকে জলপাইগুড়ি রেফার করা হয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, যৌনাঈে গভীর ক্ষত রয়েছে। রক্তক্ষরণ হচ্ছে। সেজন্য তাঁকে জলপাইগুড়ি জেলা হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। এদিকে অভিযুক্তদের এখনো ধরতে না পরায় পুলিশের ভুমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে। দ্রুত তাঁদের ধরা হবে।