শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে স্কুলের ভেতর ধরনা প্রাইভেট টিউটরস সংগঠনের

জলপাইগুড়ি, ২৭ এপ্রিল: প্রধান শিক্ষকের ঘরের সামনে ধর্ণায় বসল ওয়েস্ট বেঙ্গল প্রাইভেট টিউটরস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের জলপাইগুড়ি জেলা শাখার সদস্যরা। জলপাইগুড়ি হাই স্কুলের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে ধর্ণায় বসেন সংগঠনের সদস্যরা। অভিযোগ, ওই শিক্ষক এদিন স্কুলে এসে কাউকে কিছু না জানিয়ে বেরিয়ে পরেন।

Top News

জানা গিয়েছে ওয়েস্ট বেঙ্গল প্রাইভেট টিউটরস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সদস্যরা বৃহস্পতিবার বেলা সওয়া ১১ টা নাগাদ জলপাইগুড়ি হাই স্কুলে যান। সরকারী নির্দেশিকা অমান্য করে ওই স্কুলের দুইজন শিক্ষকের গৃহশিক্ষকতা করা বিরুদ্ধে প্রধান শিক্ষককে তারা স্মারকলিপি দিতেন। কিন্তু স্কুলের প্রধান শিক্ষককে না পেয়ে ফিরে আসার সময় তারা জানতে পারেন ওই দুই শিক্ষকের একজন কাউকে কিছু না জানিয়েই স্কুল থেকে বেরিয়ে গেছেন। এরপরই ওয়েস্ট বেঙ্গল প্রাইভেট টিউটরস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সদস্যরা প্রধান শিক্ষকের অফিস ঘরের সামনে ধর্ণায় বসে পড়েন। এসোসিয়েশনের রাজ্য সভাপতি সুজয় বর্মন অভিযোগ করেন, “একজন শিক্ষক স্কুলে আসবেন, ইচ্ছেমতো সই করে বেরিয়ে যাবেন। তারপর ব্যক্তিগত কাজ সেরে স্কুলে যখন খুশি আসবেন, এইভাবে শিক্ষা ব্যবস্থা চলতে পারে না। আমাদের সরকার কোটি কোটি টাকা খরচ করছে। নতুন নতুন অভিনব উদ্যোগ নিচ্ছে শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নতির জন্য। কিন্তু কিছু নিকৃষ্ট মানুসিকতার শিক্ষকের জন্য শিক্ষা ব্যবস্থার এই হল হয়েছে। আমরা এর প্রতিবাদে প্রধান শিক্ষকের ঘরে সামনে বসে পড়লাম। যে শিক্ষক এইভাবে ফাঁকি দিয়ে মাইনে নিচ্ছে। স্কুলে ঠিকমতো আসছে না বা এসে সই করে বেরিয়ে যাচ্ছে তার বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা প্রশাসনকে ,নিতে হবে। আমরা ততক্ষণ এখানে বসে থাকবো যতক্ষন না এর কোন ব্যবস্থা হচ্ছে।” অভিযুক্ত শিক্ষক বেলা ৩টে নাগাদ স্কুলে ফিরেছিলেন বলে জানা গেছে।

ঘটনার খবর পেয়ে জলপাইগুড়ি জেলা উচ্চ বিদ্যালয় পরিদর্শক, সংশ্লিষ্ট স্কুলের বিদ্যালয় পরিচালন কমিটির সভাপতি ঘটনাস্থলে এসে পুরো ঘটনার তদন্ত করা হবে আশ্বাস দিলে বিকেল নাগাদ ধর্ণা তুলে নেন ধর্নাকারীরা।