এক মহিলাকে ধর্ষণ করে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা, সেই আগুনে পুড়ে মরল ধর্ষক 

বিশ্বজিৎ মণ্ডল, মালদা: ধর্ষণের পর মহিলাকে আগুনে পুড়িয়ে খুনের চেষ্টা। আর সেই আগুনেই পুড়ে আত্মহত্যার চেষ্টা অভিযুক্ত যুবকের। ওই ঘটনায় মৃত্যু হয় অভিযুক্ত যুবকের। মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ধর্ষিতা মহিলা চিকিৎসাধীন। এমন মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে মালদার মানিকচক থানার মথুরাপুর সুভাষ কলোনী এলাকায়। ঘটনার তদন্তে নেমেছে মানিকচক থানার পুলিশ।

Top News

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মৃত যুবকের নাম পিন্টু শেখ।মালদার চাঁচল থানা এলাকার বাসিন্দা।জানা গেছে, সুভাষ কলোনী এলাকায় বসবাসকারী ওই মহিলার স্বামী মারা গেছেন প্রায় তিন বছর আগে। তার চার মেয়ে। এক মেয়ের বিবাহ হয়েছে। দুই মেয়ে পড়াশোনার জন্য বিদ্যালয়ের আবাসনে থাকেন। আর এক মেয়ে কাজের জন্য বাইরে থাকেন। বাড়িতে ওই মহিলা ও এক অন্ধ দেওর থাকেন। এই মহিলা সোমবার বিকেলে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন।পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মহিলা ও ওই যুবককে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসা জন্য নিয়ে যায়। তবে কি করে এই আগুন, এই প্রসঙ্গে কিছুই জানাতে চাননি প্রতিবেশীরা।

ঘটনা প্রসঙ্গে আক্রান্ত ওই মহিলা জানিয়েছেন, অভিযুক্ত যুবকের সাথে দীর্ঘদিনের পরিচিতি। এদিন দুপুরে ওই যুবক বাড়ি আসে, দুপুরের খাওয়ারও খায়।তারপরই আমাকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করেন। এরপর মহিলার গায়ে তেল ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেয়।সাথে ওই আগুনের পুড়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে পিন্টু শেখ। কোনোক্রমে পালিয়ে বাড়ির বাইরে আসলে প্রতিবেশীরা মহিলার আগুন নেভান। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দুজনকেই চিকিৎসার জন্য মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। তবে ভোর রাতে মৃত্যু হয় ওই যুবকের।

পুলিশ জানিয়েছে, দুইজন আগুনে পুড়ে যাওয়ার ঘটনা সামনে এসেছে। দুজনকেই চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওই যুবকটির মৃত্যু হয়েছে। মহিলা একটু সুস্থ হলেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। মৃত যুবকের পরিবারের সাথে কথা বলা হচ্ছে। তারপরেই পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। যদিও এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়নি থানায়।