জাতীয় সড়কের উপর চাঁদার জুলুমের শিকার সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায়

ওয়েব ডেস্ক, ২৪ জানুয়ারিঃ রাস্তা আটকে চাঁদা তোলাকে কেন্দ্র করে গন্ডগোল। জাতীয় সড়কের উপর চাঁদার জুলুমের শিকার খোদ সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায়। গাড়ি থেকে নেমে প্রতিবাদ করলে, বিজেপি সাংসদের সঙ্গে বচসা শুরু হয়ে যায় তোলাবাজদের। তাঁকে হেনস্থা করা হয় বলে অভিযোগ। এরপর রূপার সঙ্গে চাঁদা আদায়কারীদের বচসা শুরু হয়। স্থানীয়রা চাঁদা তুলবে বলে জানিয়ে দেয়। ক্ষুব্ধ রূপা গাড়িতে উঠে যান।

Top News

জানা গিয়েছে, বোলপুরে সভা শেষে কলকাতা ফিরছিলেন বিজেপি নেত্রী রূপা গাঙ্গুলি। এনএইচ ২ ধরে আসছিল তাঁর গাড়ি। সিউড়ি-গুসকরা রাস্তা দিয়ে বর্ধমানে গাড়ি ঢোকে। আলমপুরের কাছে গাড়ি আটকে পড়ে জ্যামে। গাড়ি থেকে নেমে রূপা দেখেন বেশ কয়েকটি ট্রাক দাঁড়িয়ে। কয়েকজন যুবক চাঁদা তুলছে। এগিয়ে যান রূপা। প্রশ্ন করেন, কেন জাতীয় সড়কে চাঁদা তোলা হচ্ছে ? স্থানীয়রা বলে, “আমাদের উৎসব আছে। সবার থেকে ১০ টাকা করে চাঁদা নেওয়া হচ্ছে।” রূপা বলেন, “এখানে চাঁদা তুলবেন না।” পালটা চাঁদা আদায়কারীরা জানায়, “চাঁদা তুলবই। কেউ আটকাতে পারবে না।” শুরু হয় কথা কাটাকাটি। রূপা রাজনীতি করছেন বলেও অভিযোগ করে চাঁদা আদায়কারীরা। জবাবে রূপা বলেন, “আমি রাজনীতি করতে আসিনি।” পরিস্থিতি শান্ত করতে উদ্যোত হন নিরাপত্তারক্ষীরা।