প্রেমের সম্পর্কে টানাপোড়ন, কীটনাশক পাণ প্রেমিক যুগলের! মৃত পেমিক

বিশ্বজিৎ মণ্ডল, মালদাঃ প্রেমের সম্পর্কে টানাপোড়নের জেরে কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা প্রেমী যুগলের। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে প্রেমিকের তবে চিকিৎসাধীন প্রেমিকা। ঘটনায় শোকাহত স্কুল পড়ুয়া প্রেমিকের পরিবার। দেহ ময়নাতদন্তে পাঠিয়ে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার গাজল থানার যৌরগাছি এলাকায়।

Top News

পুলিশ সূত্রে জানাগেছে, মৃতের নাম বিপিন দাস(১৯)। আলাল উচ্চ বিদ্যালয়ের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র ছিল সে। বাবা শ্যামল দাস দিনমজুর। পরিবার সূত্রে জানা গেছে, বিপিনের মামা লক্ষী রাম দাসের বাড়ি গাজলের দেওতোলা এলাকায়। মাঝে মধ্যেই মামার বাড়ি যাওয়া আশা করতো বিপিন। সেই সূত্রেই মামার বাড়ির কাছে এক নাবালিকার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে তার। গোপনে চলতে থাকে দুজনের প্রেম। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা নাগাদ মামার বাড়ি থেকে বাড়ি গিয়ে কীটনাশক খেয়ে ফেলে বিপিন। পরিবারের লোকেরা বুঝতে পেরে তাকে তড়িঘড়ি গাজল গ্রামীন হাসপাতাল ও পরে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

অন্যদিকে প্রেমিকাও কীটনাশক খেয়ে ফেলে। তাকেও তার পরিবারের সদস্যরা মালদা মেডিক্যালে ভর্তি করেন। তবে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় প্রেমিক বিপিন দাসের। সেখানেই চিকিৎসাধীন নাবালিকা প্রেমিকা। গাজল থানার পুলিশ বিপিনের দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়। ঘটবার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।