তৃণমূল কর্মীকে গুলি করে খুন, অভিযুক্ত দলেরেই উপপ্রধান

আলিপুরদুয়ার, ২৩ জানুয়ারি: অবৈধ বালি খাদানের বিরোধীতার জের৷ প্রতিবাদী এক তৃণমূল কর্মীকে গুলি করে খুনের অভিযোগ উঠল আলিপুরদুয়ার পরোরপার গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান শম্ভু রায়ের বিরুদ্ধে। মৃত ওই তৃণমূল কর্মীর নাম তুষার বর্মণ। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার রাতে আলিপুরদুয়ার ১ নম্বর ব্লকের তপসিখাতা অঞ্চলে।  অভিযোগ, তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর দ্বন্দ্বের জেরে এই খুন। খুব কাছে থেকেই ওই তৃণমূল কর্মীকে গুলি করা হয়। ওই ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়।

Top News

জানা গেছে, কোনও মতেই অবাধ বালি খাদানের ব্যবসা বরদাস্ত করা হবে না৷ প্রশাসনিক সভায় জেলায় জেলায় গিয়ে নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী৷ কিন্তু তবুও বিরাম নেই অবৈধ সেই ব্যবসার৷ কালজানি নদী পাড়ে বালির অবৈধ ব্যবসা চলছিল৷ তা নিয়েই বচসার সূত্রপাত৷ এরপরই যা গড়ায় হাতাহাতিতে৷ ভাইকে মারা হয়েছে খবর পেয়েই নদী পাড়ে যান শাসক দলের কর্মী তুষার৷ এরপরই দুষ্কৃতিরা পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে তার মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে গুলি করে বলে অভিযোগ৷ ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তুষারের।

         ওই ঘটনার পর অভিযুক্ত পঞ্চায়েত উপপ্রধানের গ্রেফতারের দাবিতে মঙ্গলবার রাতেই নিহতের দেহ আটকে চলে বিক্ষোভ৷ পরে নিরপেক্ষ তদন্ত ও দোষীর শাস্তির আশ্বাসে বিক্ষোভ তুলে নেন নিহত তৃণমূল কর্মী তুষার বর্মনের পরিবার ও গ্রামবাসীরা৷ পরিস্থিতি উত্তেজিত থাকার কারণে ঘটনাস্থলে মোতায়েন কড়া হয় বিশাল পুলিশ বাহিনী।