শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়ে বাংলায় ধেয়ে আসছে ‘তিতলি’

কলকাতা, ১০ অক্টোবরঃ পুজো নিয়ে এখন চলছে শেষ মুহূর্তের কাউন্ট ডাউন৷ কিন্তু উৎসবের আনন্দে চোখ রাঙাচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’৷ আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, বঙ্গোপসাগরে গভীর নিম্নচাপ পরিণত হয়েছে ঘূর্ণিঝড়ে। ঘূর্ণিঝড় এর নাম দেওয়া হয়েছে ‘তিতলি’। স্যাটেলাইল পর্যবেক্ষণের শেষ মুহূর্তের আপডেট বলছে, শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে ‘তিতলি’। শক্তি বাড়িয়ে তা ক্রমশ স্থলভাগের দিকে ধেয়ে আসছে। বর্তমানে কলকাতা থেকে ৭১১ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছে ঘূর্ণিঝড়টি।

Top News

পূর্বাভাস বলছে, স্থলভাগে ঢোকার আগে ‘তিতলি’র শক্তি আরও বাড়বে। অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে ‘তিতলি’। তারপরই আগামী ১২ ঘণ্টায় উত্তর-পশ্চিম অভিমুখে অগ্রসর হয়ে তা আছড়ে পড়বে ওড়িশা উপকূলে। প্রাথমিকভাবে অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’র অভিমুখ ওড়িশা উপকূলের দিকেই রয়েছে। জানা যাচ্ছে, ঝড়ের গতিবেগ হতে পারে ১০০ থেকে ১১০ কিলোমিটার। ‘তিতলি’র মোকাবিলায় কোমর বেঁধেছে রাজ্য প্রশাসন। ‘তিতলি’র যাত্রাপথ সম্পর্কে স্যাটেলাইট পর্যবেক্ষণ থেকে পাওয়া তথ্যে জানা যাচ্ছে, ওড়িশায় ঢোকার পর ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’র অভিমুখ ফের একবার পরিবর্তন হবে। উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে ১২ অক্টোবর তা পশ্চিমবঙ্গের উপকূল অঞ্চলে আছড়ে পড়বে। যার প্রভাবে পশ্চিমবঙ্গে প্রবল দুর্যোগের সম্ভাবনা রয়েছে বলে সাবধান করছেন আবহাওয়াবিদরা। আবহাওয়াবিদরা জানাচ্ছেন, ‘তিতলি’ আছড়ে পড়ার পর প্রায় ৭২ ঘণ্টা দুর্যোগ চলবে। ‘তিতলি’র দাপটে পশ্চিমবঙ্গের উপকূলবর্তী জেলা ও দক্ষিণবঙ্গে পুজোর মুখে বৃহস্পতিবার থেকে রবিবার তুমুল বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।