জয়নগরে শুটআউট কাণ্ডে গ্রেপ্তার তৃণমূল নেতা বাবুয়া সহ ৩

জয়নগর, ১১ জানুয়ারিঃ জয়নগরে গুলি চালানোর ঘটনায় আরও তিনজনকে গ্রেপ্তার করল সিআইডি। শুক্রবার ভোর রাতে দিল্লির নেহেরু বিভাগ এলাকা থেকে ওই তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের মধ্যে একজন ওই ঘটনার মূল অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা আব্দুল কাহার মোল্লা ওরফে বাবুয়া। বাকি দু’জনের নাম আব্দুল হোসেন মিস্ত্রী ওরফে আবুল, মনিরউদ্দিন গাজি। ধৃত ওই তিনজন দিল্লিতে বাবুয়ার এক আত্মীয়র বাড়িতে আত্মগোপন করেছিল। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সেখান থেকেই তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

Top News

উল্লেখ্য, গত বছর ডিসেম্বরের ১৪ তারিখ জয়নগরের তৃণমূল বিধায়ক বিশ্বনাথ দাসের গাড়ি লক্ষ্য করে বহরু এলাকায় গুলি চালায় একদল দুষ্কৃতী। ওই গাড়িতে বিধায়ক বিশ্বনাথ দাস না থাকায় প্রানে বেঁচে যান তিনি। কিন্তু ওই ঘটনায় বিধায়কের গাড়ি চালক-সহ তিনজনের মৃত্যু হয়। ঘটনার পর তৃণমূলের তরফে অভিযোগ ওঠে, এলাকার বিধায়ক বিশ্বনাথ দাসকে খুনের উদ্দেশেই তাঁর গাড়িতে হামলা চালিয়েছিল বিরোধী দলের আশ্রিত দুষ্কৃতীদল। যদিয়ও বিরোধীদের দাবি, তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফলে ওই ঘটনা। ঘটনার পরই মুখ্যমন্ত্রী প্রকৃত দোষীদের খুঁজে কঠোর শাস্তি দেওয়ার নির্দেশ এরপর ওই ঘটনার তদন্তভার যায় সিআইডির হাতে। শুরু হয় অভিযুক্তদের খোঁজ।

তদন্তে নেমে সিআইডির অফিসারেরা জানতে পারে, ঘটনার মাস্টারমাইন্ড আবদুল কাহার মোল্লা ওরফে বাবুয়া এবং তার দুই সহযোগী দিল্লিতে আত্মীয়ের বাড়িতে গা ঢাকা দিয়েছে। এরপরই তল্লাশিতে নামে সিআইডি দল। দিল্লি পুলিশের সাহায্য নিয়ে চলে অভিযান। শুক্রবার সকালে দিল্লির দয়ালপুরের নেহরু বিহার থেকে ধরা পড়ে আবদুল কাহার মোল্লা ওরফে বাবুয়া। একে একে সিআইডি গ্রেপ্তার করে বাবুয়ার দুই সহযোগী আবদুল হোসেন মিস্ত্রি ওরফে আবুল এবং মনিরুদ্দিন গাজিকে। অভিযুক্তদের সকলের বাড়ি জয়নগরের হাসানপুরে বলে জানা গিয়েছে। এদিন তাদের ট্রানজিট রিমান্ডে কলকাতায় আনা হচ্ছে বলে সিআইডি সূত্রে খবর।