Be Well

জামাইষষ্ঠীর আগে কোচবিহারের বাজারে আগুন

ওয়েব ডেস্ক, ১৮ জুনঃ  জামাইষষ্ঠীর আগে কোচবিহারের বাজারে আগুন। মাছ, মাংসের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে শাক-সব্জির দামও। জামাইদের রসনা তৃপ্তি করাতে দুঃশ্চিন্তা বেড়েছে শাশুড়িদের। পাশাপাশি জামাইদেরও অবস্থাও কাহিল হতে চলেছে। আজ কোচবিহারে বাজারে ইলিশের দাম চড়েছে ১২০০ টাকা কেজি, আমের দাম উঠেছে ৭০ থেকে ৮০ টাকা, লিচু ১৪০ টাকা কেজিতে ঘোরাফেরা করলেও সোমবার জামাইষষ্ঠীর আগের দিন দাম যে আরও বাড়বে তার আঁচ ব্যবসায়ীরা দিয়ে রেখেছেন। ফলে বাজারে গিয়ে হাত পুড়ছে গৃহস্থের। বাজার করতে গিয়ে শাশুড়িরা যেমন হিমশিম খাচ্ছেন তেমনই জামাইদের পকেটও ফাঁকা হয়ে যাচ্ছে। কোচবিহারের বাজারে  ৭০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ বিক্রি হয়েছে ৭০০ টাকা কেজি দরে, পাবদা ৪০০ টাকা, খাসির মাংস ৬০০ টাকা, দেশি মুরগি ৩৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। ল্যাংড়া আমের ৮০ টাকা কেজিতে বিক্রি হয়েছে। মধ্যে ল্যাংড়া আম ৬০-৭০ টাকা, লিচু ১৫০ টাকা, জাম ৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। সব্জির মধ্যে আলু ২০ টাকা, গাঁজর ৮০ টাকা, মুখি কচু ৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। প্রশাসনের তরফে বাজার দামের কোনও নিয়ন্ত্রণ না থাকায় কিছু অসাধু ব্যবসায়ী রাতারাতি দাম বাড়িয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠছে।  তবে বিষয়টি নজরে রয়েছে বলে জানান এক প্রশাসনিক কর্তা। দাম নিয়ন্ত্রণে রাখার ব্যাপারে পদক্ষেপ করা হবে বলেও আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। কাল মঙ্গলবার এই দর কোথায় ঠেকবে তা সহজেই অনুমেয়।

এবার দেখে নেওয়া যাক এই মুহূর্তে উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলার বারজারদর

 জলপাইগুড়িতে পাঁঠার মাংস প্রতি কেজি ৬০০ থেকে বেড়ে ৭০০ টাকা হয়েছে। খাসির মাংস ৫০০ টাকা থেকে বেড়ে ৬০০ টাকা হয়েছে। বয়লার মাংস ১৮০ টাকা কেজি ছাড়িয়েছে। চিংড়ির কেজি ৭০০ টাকা। মালবাজারে দেশি মুরগির দাম কেজি প্রতি ৩০০ টাকা কেজি ছাড়িয়েছে। খাসির মাংস ৫৫০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। ল্যাংড়া আমের ৮০ টাকা কেজিতে বিক্রি হয়েছে। শিলিগুড়ির বাজারে এক কেজি ওজনের ইলিশ ১০০০ টাকা থেকে ১২০০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। চিতল মাছ ৭০০ থেকে ৮০০ টাকা, ছোট চিংড়ি ৪০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। পাঁঠার মাংস ৬৫০ টাকা, দেশি মুরগি ৩৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। রায়গঞ্জের বাজারে এদিন ইলিশ ১১০০ টাকা, পাঁঠার মাংস ৫৫০ টাকা থেকে ৬০০ টাকা এবং দেশি মুরগি গোটা ৩৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। বালুরঘাটে খাসির মাংস ৫০০ টাকা কেজি থেকে বেড়ে ৫৭০ টাকা হয়েছে। দেশি মুরগির দাম ৩৩০ টাকা, বয়লার মুরগি ১৮০ টাকায় উঠেছে। ইলিশ ৯০০ থেকে ১২০০ টাকা হয়েছে।  পুরাতন মালদহ বাজারে খাসির মাংস ৫৫০ টাকা, দেশি মুরগি ২৭০-৩০০ টাকা, বয়লার মুরগি ১৫০-১৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। পাশাপাশি ৫০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ ৮০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। আলিপুরদুয়ারে এদিন এক কেজি ওজনের ইলিশ বিক্রি হয়েছে ১৫০০ টাকায়।  মাংস (পাঁঠা) কেজি প্রতি ৬৫০ থেকে ৭০০ টাকা। দেশি মুরগি গোটা বিক্রি হচ্ছে ৩৫০ টাকা কেজি বলে জানা গিয়েছে।

আমাদের খবর টেলিগ্রামে পেতে ক্লিক করুন নীচের লিঙ্কে:  http://t.me/khaboria24
হোয়াটস্যাপে আমাদের সাথে যুক্ত হতে এই লিংকে ক্লিক করুন:  https://goo.gl/MF2taz