মাহি ম্যাজিকেই জয় ভারতের

ওয়েব ডেক্স, ১৮ জানুয়ারিঃ অস্ট্রেলিয়া: ২৩০/১০ (হ্যান্ডসকম্ব-৫৮)/ ভারত: ২৩৪/৩ (কোহলি-৪৬, ধোনি- ৮৭*, কেদার-৬১*)/ ৭ উইকেটে জয়ী ভারত

Top News

বিশ্বকাপের আগেই ধোনি আরও একবার বুঝিয়ে দিলেন তাঁর গুরুত্ব। নিন্দুকদের দেখিয়ে অবশেষে জয়ের হাসি হাসলেন তিনি । ৮৭ রানের দায়িত্বপূর্ণ ইনিংস খেলে বুঝিয়ে দিলেন তিনি শেষ হয়ে যাননি। ডনব্যাড ম্যানের দেশ শ্লোগানে ভাসল ‘মাহি ইস মাহি’, ‘মাহি ইস ব্যাক’।  আজ যেন ধোনি ছিল তাঁর চেনা ছন্দে। আজকের এই ম্যাচ দেখে গোটা দেশ ধোনিকে নিয়ে উল্লাসে মেতে উঠেছে। ভারতে আজ আবার যেন মাহি মেনিয়া জাগ্রত হয়েছে।

এদিন টসে জিতে প্রথম বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ভারত অধিনায়ক। এদিন শুরু থেকেই ভাল ফর্মে ছিলোনা অজি দল। শুরুতেই ফিরতে হয়েছে দুই ওপেনারকে। অজি অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ আউত হয়েছেন ১৪ রানে। মিডল অর্ডারে শন মার্শ (৩৯) ও পিটার হ্যান্ডসকম্বের (৫৮) যুগলবন্দিতে কিছুটা এগিয়ে যায় ব্যাগি গ্রিনরা। তবে তাঁরা বেশি দূর স্কোরবোর্ড এগিয়ে নিয়ে যেতে পারেননি। মার্শ, হ্যান্ডসকম্ব যুজবেন্দ্র চাহলের স্পিনে উইকেট দিয়ে ফিরতেই ভেঙে পড়ে অজি ব্যাটিং। শেষ পর্যন্ত সব উইকেট খুইয়ে ২৩০ রানই করতে পারেন তারা। ৬টি উইকেট নিয়ে মেলবোর্নে বিশেষ নজীর স্থাপন করলেন যুজবেন্দ্র।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ভারত কিছুটা ধীর গতিতেই হাঁটতে শুরু করে। রোহিত, ধাওয়ানের স্লো ব্যাটিংয়ে বেড়ে যেতে থাকে আস্কিং রেট। তবে দুই ওপেনার ফিরে যেতেই ম্যাচ নিজেদের হাতে নিয়ে নেন বিরাট ও ধোনি।  ৪৬ রানের ইনিংস খেলেন কোহলি। ভারত অধিনায়ক আউট হতেই ব্যাট করতে আসেন কেদার যাদব। শেষ পর্যন্ত তিনিও ধোনির সঙ্গে সঙ্গ দিয়ে যান এবং অপরাজিত অর্ধশতরানের ইনিংস (৬১) খেলেন। ধোনির ব্যাট উপহার দেয় ৮৭ রানের ম্যাচ উইনিং ইনিংস। পরপর দুই ম্যাচ জিতে টেস্ট সিরিজের পর ওয়ানডে সিরিজও দখল করে নিল বিরাট ব্রিগেড।