শামির হ্যাটট্রিকে আফগানদের বিরুদ্ধে রুদ্ধশ্বাস জয় ভারতের

ওয়েব ডেস্ক, ২৩ জুনঃ সাউদাম্পটনে শনিবার আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচে বোলারদের সৌজন্যে রুদ্ধশ্বাস জয় পেল ভারত। আর সেই জয়ের অন্যতম দুই বলার বুমরাহ এবং অতি অবশ্যই মহম্মদ সামি। বিশ্বকাপের অন্যতম দাবিদার ইংল্যান্ডকে তাদের ঘরের মাঠেই শুক্রবার হারিয়ে নজির তৈরি করেছে শ্রীলঙ্কার মতো দূর্বল দল। এ বার আরও এক বিশ্বকাপের দাবিদার ভারতকে রীতিমতো চ্যালেঞ্জ ছূড়ে দিল আরও এক দূর্বলতম দল এই বিশ্বকাপের।

Top News

শনিবার ভারতের ব্যাটসম্যানরা বড় রানের বোঝা চাপাতে পারেননি আফগানিস্তানের উপরে। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে এদিন নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২২৪ রান করে ভারতীয় দল। মাত্র ১ বল বাকি থাকতে আফগানিস্তানের সব উইকেট ফেলে দিয়ে ১১ রানে জয় ছিনিয়ে নেয় দলের সেনানায়করা। এদিনের ম্যাচে ভারতের বোলাররা নজরকাড়া সাফল্য পেলেও ইতিহাস তৈরি করলেন পেসার মহম্মদ শামি। চলতি বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচ খেলেন তিনি এদিনই, আহত ভুবনেশ্বর কুমারের জায়গায় দলে এসে। আর এসেই নিলেন একটি দুর্দান্ত হ্যাট্রিক।  ১৯৮৭ সালের বিশ্বকাপে ভারতের চেতন শর্মা হ্যাটট্রিক করেছিলেন। তাঁর পর শামিই হলেন দ্বিতীয় ভারতীয় যিনি বিশ্বকাপের ম্যাচে হ্যাটট্রিক করলেন।

আফগানদের বিরুদ্ধে টস জিতে এদিন প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ভারত অধিনায়ক৷ গত ম্যাচের নায়ক রোহিত শর্মা মাত্র ১ রান করে আউট হয়ে যান। আফগানদের দুরন্ত বোলিং লাইন আপের কাছে রীতিমতো ঢোঁক গিলতে হয় ভারতের ব্যাটিং লাইন আপকে। ৫৩ বল খেলে মাত্র ৩০ রান করে আউট হয়ে যান লোকেশ রাহুল। অধিনায়ক বিরাট কোহলি ম্যাচের হাল ধরতে শুরু করেন কিছুটা। ৬৩ বলে ৬৭ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলে আউট হয়ে যান বিরাট। বিজয় শংকরও টুকটুক করে ২৯ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। আফগান বোলিং অ্যাটাকে রীতিমতো নাস্তানাবুদ অবস্থায় হয় বিশ্বসেরা ফিনিশার স্বয়ং মহেন্দ্র সিং ধোনির। ৫২ বল খেলে ধোনির ব্যাট থেকে উঠে আসে মাত্র ২৮ রান। ৬৮ বল খেলে ৫২ রান করেন কেদার।অন্যদিকে দাপটের সঙ্গে বোলিং করে গিয়েছেন আফগান বোলাররা। মুজিব, আফতাব, রসিদ এবং রেহমত শাহ প্রত্যেকেই ১টি করে উইকেট নেন। গুলবদন নাইব এবং মহম্মদ নবি দুজনেই ২টি করে উইকেট তুলে নিয়ে চমক দেখান।

২২৫ রানের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে খেলতে নেমে আফগানিস্তানের ওপেনিং ব্যাটসম্যান হজরতুল্লা ১০ রান করে শামির বলে আউট হয়ে যান । গুলবদন ২৭ রান করে হার্দিকের বলে ধরা দেন। রেহমত শাহ ৩৬ এবং হসমতুল্লা ২১ রান করে বুমরাহর বলে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। তবে ম্যাচকে প্রায় জয়ের দিকেই এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন মহম্মদ নবি। ৫২ রানের একটি দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন এদিন। তাঁর শেষ ওভারে দাপটের জন্যই আফগানিস্তান শেষ হয়ে যায় ২১৩ রানে। ভারত জয়লাভ করে ১১ রানে।