‘সুবিধাবাদীদের সবাই চেনে’ নাম না করে অর্জুনকে কটাক্ষ দীনেশের

ওয়েব ডেস্ক, ১৪ মার্চঃ ‘সুবিধাবাদীদের সবাই চেনে’ নাম না করে অর্জুন সিংকে এভাবেই কটাক্ষ করলেন ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী দীনেশ ত্রিবেদী। এদিন অর্জুন সিংয়ের বিজেপিতে যোগদানের জন্য তাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন দীনেশ ত্রিবেদী। একটি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী এদিন পাশাপাশি তাকে কটাক্ষ করতেও  ছাড়লেন না তিনি। বৃহস্পতিবার দুপুরে  দিল্লিতে বিজেপির সদর দফতরে এক অনুষ্ঠানে দলবদল করেন অর্জুন সিং। তাঁর হাতে বিজেপির দলীয় পতাকা তুলে দেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়।মঞ্চে তখন উপস্থিত ছিলেন মুকুল রায়ও। এদিন বিজেপিতে যোগ দিয়েই অর্জুন সিং দাবি করেন, ‘দেশহিতের থেকে নিজের ভোটব্যাঙ্ককে বেশি গুরুত্ব দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই আর তাঁর সঙ্গে কাজ করা সম্ভব হচ্ছিল না।’

Top News

তবে অর্জুন সিংয়ের বিজেপিতে যোগদানের বিষয়টিকে আমল দিচ্ছেন না ব্যারাকপুরের বিধায়ক শীলভদ্র। তিনি বলেন, ‘অর্জুন সিংহ বা যে-ই যাক কিচ্ছুটি যায় আসে না । মমতা ব্যানার্জির কেউ কিচ্ছুটি করতে পারবে না। এই কেন্দ্রে দীনেশদা জিতবেন। আমরা সবাই একসাথে দলে আছি। মমতার উন্নয়ন বনাম মোদী অপশাসনের লড়াই এটা।’

একসময়ের প্রতিপক্ষ মুকুল রায়ের হাত ধরেই বিজেপিতে যোগ দিলেন অর্জুন সিং। তৃণমূলের অন্দরেই একসময় তাদের অবস্থান ছিল দুই মেরুতে। তবে মুকুলের বিজেপিতে যোগদানের পর বারাকপুর শিল্পাঞ্চলে তৃণমূলের অন্যতম কর্তা হয়ে ওঠেন অর্জুন। তাঁর ওপর ভরসাও করেছিলেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।এমনকি এবারের লোকসভায় প্রার্থী হওয়ার অন্যতম দাবিদার ছিলেন তিনি। দৌড়ে অনেকটা এগিয়ে থাকলেও শেষ পর্যন্তও শিকে ছেরেনি স্থানীয় বিধায়ক তথা পৌরসভার চেয়ারম্যানের। যদিও রাজমন্ত্রি সভায় তাকে নিয়ে আসার প্রস্তাব দিলেও টা কার্যত ধোপে টিকল না। নির্বাচনের বড় দায়িত্ব দিলেও ধরে রাখা গেলনা এই দাপুতে নেতাকে।

সূত্রের খবর, অর্জুনকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, দীনেশ ত্রিবেদীকেই বারাকপুর কেন্দ্র থেকে প্রার্থী করতে চলেছেন তিনি। তবে অর্জুনকে তিনি রাজ্যের মন্ত্রিত্ব দেওয়ার প্রস্তাব দেন। এরপর থেকেই তিনি বেঁকে বসেন। এর পরই বিজেপিতে যোগদানের তোড়জোড় শুরু করেন তিনি। জানা গিয়েছে মুকুল রায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করেন তিনি। বুধবার সন্ধ্যা দিল্লির বিমানে ওঠেন তিনি। তার পরই চরমে ওঠে জল্পনা। সূত্রের খবর, গভীর রাত পর্যন্ত কৈলাস বিজয়বর্গীয়র সঙ্গে বৈঠক করেন অর্জুন। বারাকপুরে তাঁকে প্রার্থী করা হবে, নিশ্চিত হতেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন তিনি। সূত্রের খবর, অর্জুনকে বিজেপিতে সব করমের সাহায্য করার আশ্বাস দিয়েছেন মুকুল রায়।