হাসপাতালের অচলাবস্থা,  নবান্নে জরুরি বৈঠক মমতার

ওয়েব ডেস্ক, ১৩ জুনঃ হাসপাতালের অচলাবস্থা কাটাতে নবান্নে একটি উচ্চ পর্যায়ে বৈঠক শুরু হয়েছে৷ সেখানে হাজির রয়েছেন, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য,মুখ্যসচিব ও স্বাস্থ্যসচিবসহ অন্যান্য আধিকারিকরা৷  বৃহস্পতিবার সকালে মমতা হাসপাতাল পরিদর্শনে যায়। তবে তার পরেও স্বাভাবিক হয়নি পরিস্থিতি৷ বরং পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে৷ এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কার্যত হুমকির সুরে  হাসপাতালে চিকিৎসা পরিষেবা স্বাভাবিক করতে বলেন৷ তবে এর পড়ে পরিস্থিতি যেন আরও বিগরে যায় সে কারনেই  এবার নবান্নে জরুরি বৈঠকের ডাক দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রীর৷

Top News

আন্দোলনকারী ডাক্তারদের প্রশ্ন ছিল, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা স্বাস্থ্যমন্ত্রী কেন আহত জুনিয়র ডাক্তারকে দেখতে গেলেন না? এর পর আজ  মমতা এস এস কে এম হাসপাতালে যান৷ সেখানে গিয়ে তিনি আন্দোলনকারীদের বিক্ষোভের মুখে পড়েন৷ কথা বলেন রোগী ও তাদের পরিবারের সঙ্গে৷ এরপরই মমতার নির্দেশ চার ঘন্টার মধ্যে ডাক্তাররা কাজে যোগ না দিলে তাদের সুযোগ সুবিধা বন্ধ করে দেওয়া হবে৷ যদিও আন্দোলনকারীরা তার কথায় কান দেননি বরং ওই আন্দোলন এখন ছড়িয়ে পড়েছে গোটা দেশ জুড়ে৷

প্রসঙ্গত, মমতা বন্দপাধ্যায় ডাক্তারদের উদ্দ্যেশে যে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তাতে আঘাত পেয়েছেন আন্দোলনকারী ডাক্তাররা। তাদের বক্তব্য মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তারা সহানুভূতির আশা করেছিলেন, তাঁর পরিবর্তে এদিন মুখ্যমন্ত্রী যে হুমকির সুরে তাদের নির্দেশ দিয়েছেন তাতেই তারা মনের দিক থেকে আহত হয়েছেন। তাই তারা জানিইয়েছেন এই হুমকির কাছে তারা মাথা নত করতে রাজি নন এবং পাল্টা দাবি করেন, মুখ্যমন্ত্রীকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে। এসএসকেএম-এ মুখ্যমন্ত্রীর ওই ঘোষণার পরেই , আন্দোলনরত জুনিয়র ডাক্তাররা এনআরএস হাসপাতালে মিটিং করেন । মুখ্যমন্ত্রীর আচরণে তারা আঘাত পায়৷ তার পরে জানিয়ে দেন,তারা যেখানে সুবিচার চাইছেন সেখানে কোনও রকম সহানুভূতির আশ্বাস তারা পাচ্ছেন না। এমন অবস্থায় তারা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

উল্লেখ্য, আজ সকালে  মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এসএসকেএম হাসপাতালে যান এবং সেখানে হুমকির সুরে জানিয়েছিলেন ৪ ঘণ্টার মধ্যে কাজে যোগ দিতে হবে নইলে ওই আন্দোলনকারী জুনিয়র ডাক্তারদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সেক্ষেত্রে তিনি আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার বার্তাও দেন । সেখানে মুখ্যমন্ত্রী , আন্দালনকারীদের উদ্দেশ্য বলেন এরা ডাক্তার নন বহিরাগত।