আর পুলিশ নয়, পঞ্চম দফায় সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী দিয়ে ভোট করানোর সিদ্ধান্ত কমিশনের

কলকাতা, ১ মেঃ পঞ্চম দফাতেও সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনীর নিরাপত্তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল নির্বাচন কমিশন। কোনও বুথেই থাকবে না রাজ্যের পুলিশ। মোট ৫৭৮ কোটি কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হবে ৬ মে’র ভোটে। কমিশনের বাড়তি নজর বারাকপুরে।

Top News

পঞ্চম দফায় লোকসভা নির্বাচন ৬ মে। ওই দিন রাজ্যের সাতটি লোকসভা আসনে নির্বাচন হবে। সেই কেন্দ্রগুলি হল, বনগাঁ, ব্যরাকপুর, হাওড়া, উলুবেড়িয়া, আরামবাগ, শ্রীরামপুর ও হুগলি। মঙ্গলবারই বারাকপুরের পুলিশ কমিশনার এবং উত্তর ২৪ পরগনা জেলার প্রাশানিক আধিকারিকদের সঙ্গে জরুরি বৈঠক করে নির্বাচন কমিশন।

বারাকপুরের পুলিশ কমিশনারেটে হওয়া এই বৈঠকে ছিলেন অতিরিক্ত সিইও শৈবাল বর্মন। বারাকপুরে এবার সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন করানো কমিশনের কাছে চ্যালেঞ্জ। তাই এই কেন্দ্রে বাড়তি নিরাপত্তা বাহিনীও থাকবে। পঞ্চম দফায় লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে সাত কেন্দ্রে নির্বাচনের জন্য ১০০ শতাংশ বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে কমিশনের তরফে।পঞ্চম দফার ভোটের নিরাপত্তা নিয়ে মঙ্গলবার সিইও দফতরে,  রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক আরিজ আফতাবের সঙ্গে বৈঠক করেন কমিশনের বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক এবং বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে।

চতুর্থ দফায় রাজ্যের আট কেন্দ্রের ভোটে ছিল ৫৬২ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। পঞ্চম দফায় সাত কেন্দ্রে ভোটে থাকবে ৫৭৮ কোম্পানি। চতুর্থ দফায় কেন্দ্রীয় বাহিনীর ভূমিকা নিয়ে সরব হয় রাজ্যের বিরোধীরা। তাদের প্রশ্ন, প্রায় একশো শতাংশ কেন্দ্রীয় বাহিনী দিয়ে ভোট করানোর পরেও কেন এত অভিযোগ ? এদিন নির্বাচন কমিশন দাবি করে, পঞ্চম দফায় কেন্দ্রীয় বাহিনী আরও সক্রিয়ভাবে কাজ করবে। ভোটারদের মনোবল বাড়াতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর রুটমার্চও বাড়ানো হবে।

প্রতীকী ছবি

কমিশন জানিয়েছে, নদিয়ায় বোমাবাজির ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সব মিলিয়ে গ্রেফতার করা হয়েছে ১৪৫ জন। ৬টি বোমা উদ্ধার হয়েছে।