ষষ্ঠ দফায় অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন করতে এবার দায়িত্বে কলকাতা পুলিশ

ওয়েব ডেস্ক, ১০ মেঃ ১২ মে রাজ্য সহ গোটা দেশে ষষ্ঠ দফার সাধারণ নির্বাচন। নির্বাচন অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে প্রায় ৭১০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হচ্ছে। ষষ্ঠ দফার ভোটেই প্রথম নির্বাচনের দায়িত্ব পাচ্ছে কলকাতা পুলিস। ইতিমধ্যেই কলকাতা পুলিসের কর্মীদের পূর্ব মেদিনীপুরে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেখানে ভোট পরিচালনা করার দায়িত্বে থাকবেন তাঁরা।

Top News

মাওবাদী প্রভাবিত এলাকায় ১০০ শতাংশ বুথে থাকবে কেন্দ্রীয় বাহিনী। এরমধ্যে পূর্ব মেদিনীপুরে রাজ্য পুলিসের পাশাপাশি কলকাতা পুলিসও নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকছে। বিশেষ নজর দেওয়া হচ্ছে মাওবাদী প্রভাবিত এলাকায়।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা যায়, ষষ্ঠ দফায় রাজ্যের যে ৮টি লোকসভা আসনে ভোট গ্রহন হবে সেখানে ৬৮৬ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন থাকবে৷ যদিও এই রাজ্যে সর্বমোট ৭১৩ কোম্পানি বাহিনীর কথা বলছে কমিশন৷ তবে এর মধ্যে ২৭ কোম্পানি থাকবে স্ট্রং রুমের পাহারায়। ফলে ষষ্ঠ দফায় রাজ্যের ১০০ শতাংশ বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী দেওয়া সম্ভব নয়৷ ৮টি আসনে সর্বমোট ১৫ হাজার ৪২৮টি বুথে ভোটগ্রহণ হবে। বুথের হিসেব অনুযায়ী ৮০ শতাংশের বেশি বুথে থাকবে কেন্দ্রীয় বাহিনী৷ বাকি বুথে থাকলে সশস্ত্র রাজ্য পুলিশ এবং কলকাতা পুলিশ৷লালবাজার সূত্রে জানা যায়, রাজ্যে পঞ্চম দফা পর্যন্ত লোকসভা ভোটে কলকাতা পুলিশ বাহিনীকে অন্য কোথাও ভোটের ডিউটি করতে হয়নি। কিন্তু ষষ্ঠ দফার ভোটে জেলায় যেতে হল কলকাতা পুলিশকে। বৃহস্পতিবার সকালেই পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথি, তমলুকের মতো বেশ কয়েকটি জেলায় কলকাতা পুলিশের প্রায় দু’হাজার বাহিনী চলে গিয়েছে৷ এরা হল পুলিশের সশস্ত্র বাহিনী, ট্রাফিক পুলিশ ও রিজার্ভ ফোর্সের পুলিশ৷

আগামী ১২ মে ষষ্ঠ দফায় রাজ্যে ৮টি আসনে ভোট গ্রহন হবে৷ এগুলো হল ঘাটাল, ঝাড়গ্রাম, বিষ্ণুপুর, বাকুড়া, মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, তমলুক ও কাঁথি লোকসভা আসন৷