চালু হবে নাগরিকপঞ্জী, খুঁজে খুঁজে বের করা হবে অনুপ্রবেশকারীদের, আলিপুরদুয়ারের সভায় হুঙ্কার আমিতের

আলিপুরদুয়ার, ২৯ মার্চঃ পশ্চিমবঙ্গেও আমরা এখানেও নাগরিকপঞ্জী চালু করব। প্রতিটি অনুপ্রবেশকারীকে রাজ্যে থেকে খুঁজে খুঁজে বের করব। তাদের বের করে দেব। আজ আলিপুরদুয়ারের প্যারেড গ্রাউন্ড মাঠে দলীয় প্রার্থী জন বারলার সমর্থনে প্রচার সভায় একথা বলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি আমিত শাহ। এদিনে সভায় তিনি আরও বলেন, ‘সব শরনার্থীরা এখানে আশ্রয় পাবেন। সম্মানের সঙ্গে থাকতে পারবেন। তাদের তাড়ানোর কারও ক্ষমতা নেই। সরকার সিটিজেন্সশিপ অ্যামেন্ডমেন্ট বিল পাস করিয়েছে। এর ফলে ভারতের বাইরে থেকে আসা শিখ, বৌদ্ধ, হিন্দু, শিখরা এদেশে নাগরিকত্ব পাবেন।’

Top News

এরাজ্যের শরনার্থীদের উদ্দেশ্যে অমিত শাহ বলেন,‘বলা হচ্ছে নাগরিকপঞ্জী চালু হলে শরনার্থীদের রাজ্য ছাড়তে হবে। আপনাদের স্পষ্ট বলে দিতে চাই, সরকার আইন পাস করেছে কোনও শরনার্থীকে রাজ্য ছাড়তে হবে না। এখানে হিন্দু, বৌদ্ধ, শিখ, জৈনরা নিশ্চিন্তে থাকতে পারবেন। মমতাদি আপনি যত শক্তিই প্রয়োগ করুন শরনার্থীদের বের করার কোনও ক্ষমতা নেই আপনার।’

উল্লেখ্য,অসমে নাগরিকপঞ্জী চালু করার ফলে ইতিমধ্যেই সেখানে প্রবল অসন্তোষ তৈরি হয়েছে। ৪০ লক্ষ মানুষ নাগরিকপঞ্জী থেকে বাদ পড়েছেন। শুক্রবার আলিপুরদুয়ার থেকেই বাংলায় ভোট প্রচার শুরু করলেন বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ। এদিনের আলিপুরদুয়ার প্যারেড গ্রাউন্ড মাঠের সভায় প্রথম থেকেই আক্রমণাত্মক ছিলেন আমিত শাহ। সভা মঞ্চ থেকেই তৃণমূলের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারির সুরে জানিয়ে দেন, “যতই এ বার গুন্ডা নামান, তৃণমূল কংগ্রেস হারছেই।”

বাংলা থেকে ২৩ টি আসন বিজেপি জিতবে বলে প্রত্যয়ের সঙ্গে জানিয়ে দেন শাহ। এবং এই ২৩টির মধ্যে যে আলিপুরদুয়ারও থাকবে তাও ভবিষ্যদ্বাণী করে দেন গান্ধীনগরের এ বারের বিজেপি প্রার্থী। তাঁর কথায়, “হাওড়া থেকে আলিপুরদুয়ার, যেখানেই যান, সেখানেই তৃণমূলের হার নিশ্চিত হয়ে গিয়েছে।”

গেরুয়া শিবিরের শীর্ষ নেতা এ দিন পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূলের সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে বলেন, “৩৪ শতাংশ আসনে ভোট করতে দেননি মমতা দিদির সরকার। বিজেপি কর্মীদের খুন করেছে তৃণমূলের গুণ্ডারা। কিন্তু দিদি, আপনি কান খুলে শুনে রাখুন, যত ইচ্ছে খুন করুন। আপনি বিজেপি-র জয় ঠেকাতে পারবেন না।”