দিলীপ ঘনিষ্ঠকে জেরা করে পুলিশের হানা, বার্নপুরে ব্যবসায়ীর বাড়িতে উদ্ধার আরও ১৯ লক্ষ টাকা

বার্নপুর, ১৭ মেঃ দিলীপ ঘোষের আপ্তসহায়ক গৌতম চট্টোপাধ্যায়কে জেরা করে সিআইডি বার্নপুরের এক ব্যবসায়ীর বাড়ি থেকে আরও ১৯ লক্ষ টাকা উদ্ধার করেছে। ওই টাকাও পরে অন্য জায়গায় পাঠানো উদ্দেশ্য ছিল। বুধবার রাতে সিআইডি ওই ব্যবসায়ীর বাড়িতে তল্লাশি চালায়। তার আগেই অবশ্য ওই ব্যবসায়ী এলাকা ছেড়ে চম্পট দেয়।

Top News

পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, উদ্ধার হওয়া প্রায় ১৯ লক্ষ টাকার মধ্যে ৫০০, ২০০০ এবং ১০০ টাকার নোট ছিল। ওই টাকা বাড়ির এক কোণে রাখা ছিল। তদন্তকারীরা ওই ব্যবসায়ীর পরিবারের লোকজনদের জেরা করে টাকার উৎস জানতে পারেনি। বার্নপুর স্টেশন রোডে ওই ব্যবসায়ীর পান-মশলার দোকান রয়েছে। ইতিমধ্যেই সে বেশ কিছু টাকা কলকাতা পাঠিয়েছে।

পুলিস সূত্রে আরও জানা গিয়েছে,পরিবারের লোকজনরা জিজ্ঞাসাবাদ করার সময় জানিয়েছে, তার পান মশলার হোলসেল ব্যবসা রয়েছে। এছাড়া বই, খাতারও সে ব্যবসা করে। বিভিন্ন স্কুলে বই সরবরাহ করে। বহুদিন ধরেই তার ব্যবসা রয়েছে। তবে ১ কোটি ২০ লক্ষ টাকা কাউকে দেওয়ার সামর্থ্য তাঁর নেই। ওই ব্যবসায়ী বিজেপি সমর্থক হিসাবেই এলাকায় পরিচিত বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে। তৃণমূলের অভিযোগ, বার্নপুরের ওই ব্যবসায়ী শুধু বিজেপির সমর্থক নয়, সে সক্রিয় কর্মী। তাঁর কাছে হাওলার মাধ্যমে টাকা এসেছিল।

পশ্চিম বর্ধমান জেলার তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক প্রবোধ রায় বলেন, বিজেপি নেতাদের বাড়িতে তল্লাশি চালানো হলে আরও কয়েক কোটি কালো টাকা উদ্ধার হবে। ওরা টাকার বিনিময়ে ভোট কিনতে চেয়েছিল, তা প্রমাণ হয়ে গিয়েছে। বিজেপির জেলা সভাপতি লক্ষ্মণ ঘরুই বলেন, পুরোটাই ষড়যন্ত্র। তৃণমূল ভোটের জন্য আর কত নীচে নামবে?