হিন্দু ভাইয়ের মৃতদেহ সৎকারে করল মুসলিম ভাইয়েরা,সম্প্রীতির এক অনন্য নজির বসিরহাটের

শ‍্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনা: বাংলায় যখন হিন্দু ও মুসলিম সাম্প্রদায়িকতার হানাহানির আভাস পাওয়া যায়। ঠিক তখন এই বাংলায় সেই সম্প্রীতির এক অনন্য নজির বসিরহাটের এক মুসলিম সম্প্রদায় একদল মানুষ। বসিরহাট মহকুমার হাড়োয়া ব্লক এর গোপালপুর একনম্বর পঞ্চায়েতের মাদারতলা গ্রামের ঘটনা। বরাবরই এই গ্রামটার মুসলিম সম্প্রদায় সংখ্যা গুরু অধ্যুষিত গ্রাম। এই গ্রামে সাড়ে তিনশ পরিবার জনসংখ্যা দেড় হাজার গ্রামবাসী বসবাস। তারমধ্যে মাত্র একটি পরিবার রয়েছে হিন্দু।

Top News

রবিবার দুপুরে সেই হিন্দু পরিবারের এক যুবক পারিবারিক বিবাদ ও অর্থনৈতিক সমস্যার জেরে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন। তার শবদাহ করার মত কেউ ছিল না। তার মা বাবা ছাড়া আরও কেউ নেই। তাই বাধ্য হয়ে এলাকায় মুসলিম সম্প্রদায়ের ভাইদের কাঁধে চড়ে বাশের দোলায় চরে শেষকৃত্য করতে শ্মশানের উদ্দেশ্যে পাড়ি দেয়।

এই অনন্য নজির দেখে সবাই আবেগ আপ্লুত ও সম্প্রীতির একটা মেলবন্ধন তৈরি হলো। দাহ করার মত তেমন সমর্থ নেই, তেমন কাঁদে চরিয়ে নিয়ে যাওয়ার মতো কেউ নেই, তাই এগিয়ে আসলো মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ। আর কাঁধ ভাড়া করে নিল মুসলিম ভাইরা। এ এক অনন্য নজির। জাতি ভেদাভেদ ভুলে সম্প্রীতির হানাহানি ভুলে শ্মশানের শেষকৃত্য সম্পন্ন করতে এক অনন্য নজির। আর তাকিয়ে তাকিয়ে দেখলো সব সম্প্রদায়ের মানুষ।