ফের সুপ্রিম কোর্টে ধাক্কা রাজীব কুমারের, গ্রেপ্তারী এড়ানোর আবেদনের আর্জি খারিজ  

ওয়েব ডেস্ক, ২১ মেঃ সুপ্রিম কোর্টে ধাক্কা খেলেন কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার। তাঁর গ্রেপ্তারি এড়ানোর আর্জি খারিজ করে দেওয়া হল শীর্ষ আদালতে। মঙ্গলবার সেই আর্জি খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। ‘রক্ষাকবচ’-এর সময়সীমা বাড়ানোর আবেদন জানিয়ে সোমবার আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন রাজীব কুমার।

Top News

গত শুক্রবার রাজীব কুমারের উপর থেকে রক্ষাকবচ সরিয়ে নেয় শীর্ষ আদালত। বিচারপতি সঞ্জীব খান্না বলেন, প্রয়োজনে রাজীব কুমারকে সিবিআই গ্রেফতার করতে পারবে এবং জেরা পর্ব চালিয়ে যেতে পারবে। আদালত বলে, সিবিআই তাঁর বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে পারবে। এক্ষেত্রে সাত দিনের মধ্যে অন্তর্বর্তী জামিনের আবেদন করতে পারবেন রাজীব কুমার।

তারই প্রেক্ষিতে সোমবার শীর্ষ আদালতে রাজীব কুমারের আইনজীবী আবেদন করেন, এই সময় কিছুটা বাড়ানো হোক। রাজ্যে আইনজীবীদের কর্মবিরতির জেরে আদালতের কাজকর্ম বন্ধ থাকায় তাঁদের এই আবেদন বলে জানানো হয়। যেদিন থেকে কর্মবিরতি উঠবে, সে দিন থেকে সাতদিন হিসেব করার আবেদন জানানো হয়। জরুরি ভিত্তিতে এই আবেদনের শুনানির আরজি জানিয়েছিলেন রাজীব কুমারের আইনজীবী। তবে তা খারিজ করে দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি।

সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রি অফিস রাজীবের আইনজীবীকে জানিয়েছে, এ সপ্তাহে এই আবেদনের শুনানি তালিকাভুক্ত করা হয়নি। এ দিকে, এই শুক্রবারই শেষ হচ্ছে রাজীব কুমারের রক্ষাকবচ। শীর্ষ আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী, তার পর তাঁকে গ্রেফতার করে হেফাজতে নিয়ে জেরা করতে পারে সিবিআই।

প্রসঙ্গত, সারদা সহ বিভিন্ন চিটফান্ড সংস্থা সম্পর্কিত তদন্তে কলকাতার প্রাক্তন নগরপাল অসহযোগিতা করছেন বলে আদালতে অভিযোগ করে সিবিআই৷ তদন্তের স্বার্থে তাঁকে হেফাজতে নিয়ে জেরা করার জন্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানায় কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকরা৷ এর আগেই নির্বাচন কমিশনের নির্দেশের বাংলা ছাড়তে হয় প্রাক্তন কলকাতা পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে৷

 শেষ দফার আগে গত বুধবারই কমিশনের নজিরবিহীন নির্দেশিকা জারি করে। যে নির্দেশে সিআইডির অতিরিক্ত ডিরেক্টর জেনারেল পদ থেকে সরানো হয় আইপিএস রাজীব কুমারকে৷ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় তাঁকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে কাজে যোগ দেওয়ার নির্দেশ দেয় নির্বাচন কমিশন৷ তাই বৃহস্পতিবার সকালেই তড়িঘড়ি কলকাতা থেকে দিল্লি চলে যান তিনি৷