আরএসএস-বিজেপির জন্যই দেশে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা বেড়েছে, দাবী শঙ্করাচার্য স্বরূপানন্দ সরস্বতী

ওয়েব ডেস্ক, ১৫ মেঃ কেন্দ্রের শাসকদল বিজেপি এবং দক্ষিণপন্থী সংগঠন আরএসএস ভারতের হিন্দুত্বের নামে সব থেকে বেশি ক্ষতি করেছে। দেশে ক্রমবর্ধমান সাম্প্রদায়িক উত্তেজনার পেছনেও এই দুই দলের ভূমিকা রয়েছে। একথা জানিয়েছেন দ্বারকাপীঠের শঙ্করাচার্য স্বরূপানন্দ সরস্বতী।

Top News

সম্প্রতি এক ইংরেজী সংবাদপত্রকে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে তিনি বলেন, দেশে হিন্দুত্বের ধারণায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতি করেছে আরএসএস এবং বিজেপি। আরএসএস এবং বিজেপির জন্যই দেশে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা বেড়েছে বলেও তাঁর দাবি।

আরএসএস প্রধান নেতা মোহন ভাগবতের বক্তব্য খন্ডন করে স্বরূপানন্দ সরস্বতীর বলেন, ভাগবত বলেছেন হিন্দু-বিবাহ আসলে এক চুক্তি। যা সম্পূর্ণ ভুল। ভাগবত আরও বলেছেন, এদেশে যে জন্মাবে সেই হিন্দু। তাহলে আমেরিকা বা ইংল্যান্ডে জন্মানো হিন্দু পিতামাতার সন্তান কী হিসেবে গণ্য হবে? ভাগবতের এই চিন্তা সমাজের মূল ধারাকে ধ্বংস করে দেবে বলেও তাঁর অভিমত। ভারতে যে থাকবে, সে-ই হিন্দু। ভাগবতের এই বক্তব্যেও বিশ্বাসী নন স্বরূপানন্দ সরস্বতী।

অবশ্য এবারই প্রথম নয়। এর আগেও একাধিকবার আরএসএস এবং বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন শঙ্কররাচার্য সরস্বতী। তাঁর স্পষ্ট বক্তব্য, যিনি বেদ এবং শাস্ত্রে বিশ্বাসী হবেন তিনি হিন্দু, যিনি কুরআন এবং হাদিশে বিশ্বাসী হবেন তিনি মুসলিম এবং যিনি বাইবেলে বিশ্বাসী হবেন তিনি খ্রিস্টান। এ নিয়ে বিতর্কের কিছু নেই।